September 25, 2018

ইহুদিবিরোধী যে মন্তব্যে বরখাস্ত লন্ডনের সাবেক মেয়র

লন্ডন ডেস্ক: ইহুদি বিরোধী মন্তব্য করায় এবার বরখাস্ত হলেন ব্রিটেনের প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টির নির্বাহী সদস্য এবং লন্ডনের সাবেক মেয়র কেন লিভিংস্টোন।

বৃহস্পতিবার বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে লিভিংস্টোন বলেন, ‘মনে রাখবেন, হিটলার যখন ১৯৩২ সালের নির্বাচনে জয়ী হন তখন তার নীতি ছিল ইহুদিদের ইসরাইলে স্থানান্তর করতে হবে। তিনি পাগল হয়ে যাওয়ার আগে পর্যন্ত ইহুদিবাদের সমর্থক ছিলেন। এরপর ৬০ লাখ ইহুদিকে হত্যার ঘটনা ঘটে।’

এর প্রেক্ষিতে লন্ডন মেয়র প্রার্থী সাদিক খানসহ দলের প্রায় ২০ জন এমপি এন্টি সিমেটিক মন্তব্যের জন্যে কেন লিভিংস্টোনকে লেবার পার্টি থেকে বহিস্কারের দাবী তুলেছিলেন।

২০০০ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত লন্ডনের মেয়র ছিলেন লিভিংস্টোন। তিনি বামপন্থী রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত।

এন্টি সিমেটিকের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। এন্টি সিমেটিকের অভিযোগে বুধবার লেবার পার্টি থেকে বহিস্কৃত এমপি নাজ শাহের পক্ষ নিয়ে কথা বলেছিলেন। তিনি মনে করেন, ইসরায়েল নিয়ে ফেইসবুকে নাজ শাহের বক্তব্য এন্টি সিমেটিকের পর্যায়ে পড়ে না।

সাবেক মেয়র কেন লিভিংস্টোন বুধবার দল থেকে বহিস্কৃত এমপি নাজ শাহকে সমর্থন করে ‘হিটলার ওয়াজ এ জায়োনিষ্ট’ বলে এক মন্তব্য করেন। এছাড়াও ইসরায়েল সরকারের পলিসির বিপক্ষে যে কোনো ধরনের সমালোচনাকে একটি পক্ষ অত্যন্ত সুক্ষভাবে কাজে লাগিয়ে এন্টি সিমেটিক হিসেবে রূপান্তরের জন্যে কাজ করে যাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ব্রাডফোর্ড ওয়েস্ট আসন থেকে ২০১৫ সালের নির্বাচনে সাবেক এমপি জর্জ গেলওয়েকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো লেবার পার্টির এমপি নির্বাচিত হন পাকিস্তানি অরিজিন নাজ শাহ। এমপি নির্বাচিত হবার আগে ২০১৪ সালে তিনি ফেইসবুকে ইসরায়েল নিয়ে একটি কমেন্ট শেয়ার করেছিলেন। মন্তব্যে তিনি মানচিত্র পরিবর্তন করে ইসরায়েলকে আমেরিকার সঙ্গে জুড়ে দেয়ার কথা বলেছিলেন। এ মন্তব্যকে এন্টি সিমেটিক হিসেবে বিবেচনা করে তাকে লেবার পার্টি থেকে বহিস্কারের দাবী তুলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। অবশ্য আর আগে এই মন্তব্যের জন্যে পার্লামেন্টে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমাও চান এমপি নাজ শাহ।

তার আগে এই মন্তব্যের জন্যে তাকে শেডো চ্যান্সেলারের পার্লামেন্টারিয়ান প্রাইভেট সেক্রেটারীর পদ থেকেও বরখাস্ত করা হয়। পার্টি থেকে বরখাস্ত হলেও তার বিরুদ্ধে ইস্যুটি নিয়ে এখনো তদন্ত সম্পন্ন হয়নি। তদন্ত চলছে।

তবে নাজ শাহকে সমর্থন করেন সাবেক লন্ডন মেয়র কেন লিভিংস্টোন। তাকে সমর্থন জানিয়ে ইসরায়েল ও ইহুদি বিষয়ে মন্তব্যের কারণে শেষ পর্যন্ত তিনি নিজেও বহিস্কার হলেন।

উল্লেখ্য সাবেক লন্ডন মেয়র লেবার পার্টি থেকে বের হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রার্থী হয়ে লন্ডন মেয়র পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে তিনি আবার লেবার পার্টিতে ফিরে যান।

Related posts