September 24, 2018

​মা বাবার স্বপ্ন পূরণ করে যেতে পারলো না তন্ময়


সানী ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার:
তন্ময়ের সারাদিন কাটতো মোবাইল কিংবা কম্পিউটার নিয়ে। ইচ্ছে ছিলো সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার। মা বাবার চোখে মুখে ছিলো ছেলে কে হাজারো স্বপ্ন। কিন্তু সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে দিল তারই সহপাঠিরা। 

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বাসিন্দা ইসতিয়াক আহমেদ তন্ময়কে (১৬) গত শুক্রবার ময়মনসিংহে সহপাঠিরা তাকে ছুরিকাঘাতে খুন করে। ছেলের অকাল মৃত্যুতে মা বাবা বাকরুদ্ধ হয়ে গেছেন। বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন দুজনই।

রবিবার সকালে নিহত তন্ময়ের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, তন্ময়ের খুন হওয়ার ঘটনা কেউই মেনে নিতে পারছেন না। এমন হ্নদয়বিধারক ঘটনায় প্রতিবেশীরাও চোখে পানি ধরে রাখতে পারছেন না।

তন্ময়ের বাবা ফরিদ আহমেদের সাথে বলে জানা যায়, ছেলের স্বপ্ন পূরণ করতে ময়মনসিংহ শহরে সিটি কলেজিয়েট স্কুলের  নবম শ্রেণিতে ভর্তি করা হয় তন্ময় কে। তাই নালিতাবাড়ীর নিজ বাসা ছেড়ে পরিবারের সকলেই ময়মনসিংহের নওমহল এলাকায় ভাড়া থাকতেন।

গত শুক্রবার বিকেলে তন্ময়ের এক বন্ধু তাকে ফোন করে বাসার বাইরে নিয়ে আসে। পরে তারা কয়েক জন বন্ধু নিয়ে ময়মনসিংহ শহরের নতুন বাজার এলাকায় একটি কলেজের পাশে নির্জন স্থানে বসে আড্ডা দেয়। ওই সময় মুঠোফোন নিয়ে পূর্ববিরোধের জের ধরে বন্ধুদের সাথে কাথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তন্ময়কে  ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় ওই বন্ধুরা। পরে পরিবাররের লোকজন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান। তারা তন্ময়কে উদ্ধার কওে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তন্ময়ের কাকা ফাইজুল রহমান বলেন, তন্ময়ের বন্ধু ফারাবীসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

এদিকে, শনিবার বিকেলে পৌর শহরের গড়কান্দা জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে প্রথম নামাজে জানাজা শেষে সন্ধ্যায় উপজেলার নিচপাড়া গ্রামে দ্বিতীয় জানাজা শেষে নিচপাড়া কবরস্থানে তন্ময়ের লাশ দাফন করা হয়েছে।

Related posts