November 16, 2018

৯ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণ !

সুপ্রকাস চৌধুরী বর্ধমানঃ   আবারও লালসার শিকার শিশু নয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করে খুন করার অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে বর্ধমান থানার পুলিশ। জানা গেছে, অভিযুক্ত যুবকের নাম অশোক তুড়ি। ঘটনার জেরে বর্ধমানেরশাঁখারিপুকুরের কোড়াপাড়া এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। সোমবার সন্ধেয় শিশুটিকে নিজের বাড়িতে রেখে তার মা ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন। সেইসময় ওই যুবক শিশুটিকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে যায়। বাড়ি ফিরে মেয়েকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করেন মা। এরপর জানতে পারা যায়, স্থানীয় বাঁকার পাড়ে ওই শিশুটি পড়ে আছে। সেখানে গিয়ে শিশুটিকে অচৈতন্য ও রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

স্থানীয় সুত্রে খবর “ওই শিশুটির বাবা নেই। তার মা পরিচারিকার কাজ করে তিন সন্তানকে মানুষ করছিলেন। বিকেল থেকেই ছেলেটি তাদের এলাকায় ঘুরঘুর করছিল। সন্ধে নাগাদ শিশুটির মা ডাক্তারের কাছে গেলে অশোক ওই শিশুটিকে ফুঁসলিয়ে নিয়ে বাঁকার পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে শিশুটিকে ধর্ষণ করার পরে তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে। শিশুটি যাতে চিৎকার করতে না পারে সেইজন্য তার মুখে কাপড় গুঁজে দিয়েছিল অভিযুক্ত অশোক। পরে সেখানেই তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।”  স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলার সনৎ বক্সি জানান, “সোমবার রাত দশটা নাগাদ তাঁরা খবর পান, স্থানীয় বাসিন্দা অশোক তুড়ি একটা শিশুকে ধর্ষণ করে খুন করেছে। তারা অশোককে স্থানীয় ক্লাবে ধরে এনে মারধর করে। এরপর তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।”

অন্যদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে প্রতিবাদে সারা ভারত গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি, বর্ধমান শহর জোনাল কমিটি আজ বর্ধমান সদর থানায় বিক্ষোভ দেখায়। শহরে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে তারা প্রশ্ন তোলেন। বর্ধমান জেলার পুলিশ
সুপার কুনাল আগরওয়াল বলেন, “ধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত অশোক তুড়িকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। আজ তাকে আদালতে তোলা হলে দশ দিনের পুলিশি হেপাজত চাওয়া হয়।”বিচারক তা মঞ্জুর করেন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts