September 19, 2018

৯ দফা দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ গাড়ি ভাংচুর


রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার তারাব পৌরসভার রূপসী এলাকার বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড নামে তেলের মিলে ৯ দফা দাবিতে শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। উত্তেজিত শ্রমিকরা কারখানার সামনে অবস্থান নিয়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। উত্তেজিত শ্রমিকরা কারখানার ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস ভাংচুর করে। শনিবার সকালে  এ শ্রমিক অসন্তোষ দেখা দেয়।

শ্রমিক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রূপসী এলাকার বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড নামে তেলের মিলে  প্রায় সাড়ে ৫ শতাধীক শ্রমিক কাজ করেন। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে শ্রমিকরা কাজে যোগদান না করে মিলের সামনে অবস্থান করেন। এসময় মিল কর্তৃপক্ষের কাছে শ্রমিকরা ৯ দফা দাবি পেশ করেন। শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে  কোন প্রকার উত্তর না পাওয়ায় শ্রমিকরা দফায় দফায় বিক্ষোভ শুরু করেন। উত্তেজিত শ্রমিকরা কারখানার ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস ভাংচুর করে। পরে তারা স্থানীয় সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতিক) এর কাছে গিয়ে ৯ দফা দাবির বিষটি অবহিত করেন।

শ্রমিকরা অভিযোগ করে আরো জানান, কোম্পানির নিয়োজিত ঠিকাদার দেলোয়ার ভুইয়া, বকুল, ফখরুল, কারখানার প্রশাসনিক কর্মকর্তা কল্যাণ চাকমা, কামাল হোসেন, পিএম শিশির বাবু প্রায় সময়ই শ্রমিকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও নির্যাতন করে থাকেন। শ্রমিকদের নামাজ পড়তে দেয়না তারা। নামাজের সময় টুকু বেতন থেকে কেটে রাখা হয়। এছাড়া প্রতি আট ঘন্টায় এক বার টয়লেটে যাওয়ার অনুমোদন রয়েছে। কারখানায় কাজ করতে গিয়ে কোন শ্রমিক আহতের ঘটনা ঘটলে কোন খরচ দেয়া হয়না। সকল শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে আহত শ্রমিকের চিকিৎসা করাতে হয়। শ্রমিকদের এ ধরনের অভিযোগের শেষ নেই।

শ্রমিকদের দাবি গুলো হলো, ক্যাজুয়ালদের হাজিরা বৃদ্ধি করতে হবে। যারা ক্যাজুয়াল ওয়ার্কার আছে তাদের প্রত্যেকের বেতন বাড়াতে হবে। প্রতি বছর অনুযায়ী জানুয়ারী মাসে বেতন বাড়াতে হবে, কারখানা কর্তৃপক্ষ চাচ্ছে সিফট ডিউটি করানোর জন্য। ম্যানেজমেন্টের ডিউটির গ্যারান্টি দিতে হবে, সিফট ডিউটি করলে তিনটি সিফটে সমান সংখ্যক ক্যাজুয়াল রাখতে হবে, সরকারী ছুটির দিনে ছুটি দিতে হবে, সরকারী ছুটির দিন যদি প্রোডাকশন চালু রাখলে ডাবল হাজিরা দিতে হবে, যান্ত্রিক ত্রুটির কারনে ক্যাজয়াল শ্রমিক কম রাখা যাবেনা, ক্যাজুয়াল শ্রমিকদের ঈদ বোনাস মুল বেতনের ৫০ ভাগ দিতে হবে, ক্যাজুয়াল শ্রমিকদের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে, কারখানার কর্তৃপক্ষ ক্যাজুয়াল শ্রমিকদের চাকুরিচুত্য করতে পারবেনা। কোন ক্যাজুয়াল শ্রমিকের ব্যপারে কর্মকর্তাদের অসন্তুষ্টি থাকলে বিডিএফদের সঙ্গে কথা বলতে হবে।

এ বিষয়ে  কারখানার প্রশাসনিক কর্মকর্তা কল্যাণ চাকমা বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সঠিক না। এছাড়া কারখানার কার্যক্রম নিয়মের মধ্যেই চলছে। শ্রমিকদের দাবির বিষয় গুলো মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলে সমাধান করা হবে বলেও জানান তিনি।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/৩০ এপ্রিল ২০১৬

Related posts