November 17, 2018

৯ ইউনিয়নে বিএনপির মনোনয়ন পত্র ছিনতাই!


জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহ:  ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সুরাট ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মুঞ্জুরুল ইসলামের মনোনয়নপত্র ছিনতাই করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকালে তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিতে গেলে সরকারদলীয় লোকজন তার কাছ থেকে মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নেয়। জাতীয় পার্টির প্রার্থীও মনোনয়ন পত্র জমা দিতে পারেনি। তাকেও বাধা দেওয়া হয়েছে। ফলে সুরাট ইউনিয়নে বিনা প্রতিপ্রন্দতায় সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক জেএম রশিদুল আলম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হচ্ছেন। সংশ্লিষ্ট রির্টানিং অফিসার সদর উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা: মো: আনিচুর রহমান মনোনয়পত্র ছিনতাইয়ের খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন জামাদানের জন্য আসার পথে প্রার্থীদের কাছ থেকে মনোনয়ন পত্র কেড়ে নেয়া হয়েছে মর্মে জানতে পেরেছেন। তবে কারা এ ঘটনার সাথে জড়িত তা জানাতে অস্বীকার করেন এই কর্মকর্তা ।

ঝিনাইদহ জেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, সদরের ১৭টি ইউনিয়নের মধ্যে আগামী ৭ মে ৯টি ইউনিয়ন পরিসদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার মনোনয়ন পত্র জমাদানের শেষ দিনে ৩৬ জন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের বিপরিতে একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছে। বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে সুরাট ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থীর কাছ থেকে মনোনয়ন পত্র জোর করে ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড কামাল আজাদ পান্নু বলেছেন জেলা শহরের পশু হাসপাতাল সংলগ্ন উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার (রির্টানিং অফিসার ) কাছে দলীয় প্রার্থী মো: মনিরুল ইসলাম মনোনয়ন পত্র জমা দিতে আসেন। গেট থেকে তার কাছ থেকে মনোনয়ন পত্র ছিনিয়ে নেয়া হয়। প্রার্থী ভয়ে থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে পারেনি বলে জানান বিএনপির এই নেতা। সদরের ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলে, কালীচরণপুর ইউনিয়নে আলমগীর হোসেন আলম (বিএনপি), কৃ পদ দত্ত ( আওয়ামীলীগ ), দলিল উদ্দীন ( আ:লীগ বিদ্রোহী )। হরিশংকরপুর ইউনিয়নে আলমগীর হোসেন (বিএনপি), আব্দুল্লাহ আল মাসুম ( আওয়ামীলীগ) , খোন্দকার ফারুক মাসুদ ( আ: লীগ বিদ্রোহী )।

পদ্মকর ইউনিয়নে সৈয়দ নিজামুল গনি ( আওয়ামীলীগ), আব্দুর রশিদ (বিএনপি), বিকাশ কুমার ( আ:লীগ বিদ্রোহী ) আ,কম শাহিনুর আলম (স্বতন্ত্র ), চন্দন কুমার (সতন্ত্র), আবু বক্কর (জাসদ ইনু )। দোগাছি ইউনিয়নে মো: রফিকুল ইসলাম (সতন্ত্র) মো: ফয়েজউল্লাহ ( আ:লীগ বিদ্রোহী ), ইসহাক আলী ((আওয়ামীলীগ),জাহিদুল ইসলাম (বিএনপি), আব্দুল মান্নান (সতন্ত্র)। ফুরসুন্ধি ইউনিয়নে এ্যাড : আব্দুল মালেক (আওয়ামীলীগ), মো: আবু জাফর মোল্লা (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), আজিজুর রহমান (বিএনপি), আবু সাইদ সিকদার (সতন্ত্র ) শহিদুল ইসলাম সিকদার ( আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী)। ঘোড়শাল ইউনিয়নে মো: জাহিদুল ইসলাম ( আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ), ইসহাক আলী জোয়ারদার (বিএনপি), মো: আইয়ুব হোসেন (সতন্ত্র), মো: পারভেজ মাসুদ লিনটন ( আওয়ামীলীগ)। পোড়াহাটি ইউনিয়নে গিয়াস উদ্দিন (সতন্ত্র ), রোকনুজ্জামান (বিএনপি), রবিউল ইসলাম (ইসলামী আন্দোলন ), মো: শহিদুল ইসলাম হিরোন (আওয়ামীলীগ)। সুরাট ইউনিয়নে জেএম রশিদুল আলম (আওয়ামীলীগ) । ভয়ে ইউনিয়নে আর কোনপ্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিতে পারেননি। নলডাঙ্গা ইউনিয়নে মো: কবীর হোসেন ( আওয়ামীলীগ), জেসমিন আরা চুমকি (সতন্ত্র ), রবিউল ইসলাম রবি (আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ), মো: জাহাঙ্গীর কবীর ( বিএনপি ), এনামুল ইসলাম (ইসলামী আন্দোলন)।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/০৮ এপ্রিল ২০১৬/রিপন ডেরি

Related posts