November 21, 2018

৬২ জন ধনীর হাতে বিশ্বের অর্ধেক দরিদ্রের সম্পদ

বিশ্বের অর্ধেক অতি দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কাছে যে সম্পদ রয়েছে তার চেয়েও বেশি পরিমাণ সম্পদ রয়েছে মাত্র ৬২ জন ধনীর হাতে। অর্থাৎ বিশ্বের ৯৯ শতাংশ জনগোষ্ঠীর সম্পদ মাত্র ১ শতাংশ জনগণের হাতে রয়েছে। আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। রোববার এ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছে। চলতি সপ্তাহে সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বৈঠককে সামনে রেখে এ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হলো।

‘১ শতাংশের জন্য একটি অর্থনীতি’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ১২ মাসে বিশ্বের ধনী ও দরিদ্রদের মধ্যে ব্যবধান ব্যাপক পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১১ সালে বিশ্বের প্রায় সাড়ে তিনশ কোটি জনগোষ্ঠীর হাতে যে অর্থ ছিল মাত্র ৩৮৮ জন ধনীর হাতে সেই পরিমাণ সম্পদ ছিল। তবে পরের বছরই এই সংখ্যা নামতে শুরু করে। তখন বিপুল পরিমাণ সম্পদ চলে আসে ১৭৭ জন ব্যক্তির হাতে। ২০১৪ সালে এটি ৮০ এবং ২০১৫ সালে এ সংখ্যা ৬২ তে নেমে আসে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বিশ্বের জনসংখ্যা ৪০ কোটি বৃদ্ধির পরও ৫০ শতাংশ অতি দরিদ্রগোষ্ঠীর সম্পদ ৪১ শতাংশ কমেছে। একই সময় ৬২ জন অতি ধনীর সম্পদ ৫০০ বিলিয়ন থেকে ১ দশমিক ৭৬ ট্রিলিয়ন ডলার পর্যন্ত বেড়েছে।

অক্সফাম গ্লোবালের প্রধান নির্বাহী মার্ক গোল্ডরিং বলেন, এটা স্বাভাবিকভাবেই অগ্রহণযোগ্য যে একটি ক্ষুদ্র অতি ধনী গোষ্ঠীর হাতে যে সম্পদ রয়েছে, তা বিশ্বের মোট অর্ধেক দরিদ্র লোকের হাতে তা নেই। তাদের সংখ্যাটা এতোই ক্ষুদ্র যে তাদেরকে আপনি ট্রেনের একটি বগির ভেতরেই রাখতে পারবেন।

তিনি বলেন, বিশ্বে যেখানে প্রতি নয়জনে ১ জন ক্ষুধা নিয়ে রাতে ঘুমাতে যায়, সেখানে আমরা ধনীদের কেকের একটি বড় টুকরা দেওয়া অব্যাহত রাখতে পারি না।

Related posts