November 21, 2018

৩০ এপ্রিল রাত ১০টা পর্যন্ত আঙুলের ছাপ চলবে


ঢাকাঃ  বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম পুনঃনিবন্ধনের কাজ চলবে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত। দেশের সোয়া কোটিও বেশি মোবাইল গ্রাহকের জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) সঙ্গে আঙুলের ছাপ না মেলায় তা হালনাগাদ করতে ৩০ এপ্রিল রাত ১০ টা পর্যন্ত থানা নির্বাচন অফিস খোলা রাখতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সব উপজেলা নির্বাচন ও রেজিস্ট্রেশন কর্মকর্তাদের এ নির্দেশনা পাঠান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) এনআইডি উইংয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।

মাঠ কর্মকর্তাদের কাছে এনআইডি উইংয়ের পাঠানো নির্দেশনায় বলা হয়েছে, আগামী ৩০ এপ্রিল সরকারী সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে মোবাইলের সিম নিবন্ধন কার্যক্রম শেষ হবে। এজন্য রাত ১০ টা পর্যন্ত সব উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিস খোলা রেখে সিম নিবন্ধনে যাদের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সমস্যা দেখা দেবে তাদের ফিঙ্গারপ্রিন্ট আপডেট করে ‘আপলোডার সফটওয়ার’ ব্যবহার করে তাৎক্ষণিকভাবে ডাটা আপলোড করতে হবে।

যাদের ‘আপলোডার কনফিগারেশন’ সমস্যা রয়েছে তাদেরকে আইটি শাখার সাথে পরামর্শ করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলেছে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগ।

এদিকে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে পুনঃনিবন্ধনের জন্য বেঁধে দেওয়া সময় ৩০ এপ্রিলের পর কয়েক ঘণ্টা সিম বন্ধের সিদ্ধান্তে অটল থাকার কথা জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, এর পরে এই নিবন্ধন কীভাবে হবে সে বিষয়ে শনিবার জানানো হবে।

ডাক ও টেলি যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা বৃহস্পতিবার জানান, মোবাইল অপারেটরগুলোর সব কাস্টমার কেয়ার সেন্টার ও রিটেইলার পয়েন্টে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম-রিম নিবন্ধন কার্যক্রম ৩০ এপ্রিল রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে।

দেশের ছয়টি মোবাইল অপারেটরের সাত কোটি ৭৯ লাখ সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন ও পুনঃনিবন্ধন হয়েছে বুধবার পর্যন্ত। এ পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন বা পুনঃনিবন্ধন প্রক্রিয়ায় আঙুলের ছাপ না মেলায় সিম পুনঃনিবন্ধন করতে পারেননি প্রায় সোয়া এক কোটি গ্রাহক।

তারানা হালিম বলেন, ‘আরও ১ কোটি ২১ লাখ এসেছিলেন, তারা নানা ধরনের ফিঙ্গার প্রিন্ট না মেলা বা ভুলভাবে নম্বর দেওয়ার কারণে ম্যাচ করেনি। ধরে নিচ্ছি তারা জেনুইন এবং তারা এসেছিলেন।’

৩০ এপ্রিল রাত ১০ টা পর্যন্ত মোবাইল অপারেটরদের সেবা কেন্দ্র খোলা থাকার পাশাপাশি নির্বাচনী অফিসও খোলা থাকবে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/২৮ এপ্রিল ২০১৬

Related posts