September 19, 2018

২৪ ঘন্টায় ২ শতাধিক শিশু হাসপাতালে!

327
এ কে আজাদ,চাঁদপুরঃ   নিউমোনিয়াসহ ঠান্ডাজনিত রোগের প্রকোপ বেড়েছে হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ড এখন রোগীতে ঠাসা। বেড ছাড়াও ফ্লোরে রাখা হয়েছে রোগী শিশুদের। গত ২৪ ঘন্টায় ২ শতাধিক শিশু ঠান্ডাজনিত রোগে অক্রান্ত হয়ে চাঁদপুর সদর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। বেশীর ভাগ শিশুই  শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহ জনিত রোগে আক্রান্ত। যার মধ্যে  নিউমেনিয়া, শ্বাস কষ্ট, জ্বর ও ব্রংকাইটজ রোগে আক্রান্ত শিশুর সংক্ষা বেশী। আর এসব শিশুকে চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসক ও নার্সরা।

হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায় এক মাস থেকে শুরু করে দুই বছর বয়সী অক্রান্ত শিশুর সংখ্যাই বেশী। এদিকে হাসপাতালে সিট না পেয়ে অনেক মায়েরাই তাদের শিশুদের নিয়ে হাসপাতালের মেঝেতে স্থান নিতে বাধ্য হচ্ছে। মায়েরা কষ্ট করে হলেও তাদের শিশুদের চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ করে বাড়ি ফিরতে চায়। শহর থেকে শুরুকরে শহরের আশ পাশের শিশুরাই বেশী আক্রন্ত হচ্ছে।
328
হাসপাতালে ভর্তি শ্বাস কষ্টে আক্রান্ত দেড় বছরের শিশু  সায়িম, শান্তা, মাসুম, রাকিব, মুনা, মানিক, মুন্নি, রহিমা, ফাতেমা, পিয়াস এরা সকলেই ঠান্ডাজনিত রোগে অক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

এব্যাপারে হাসপাতালের আরএমও ডা. বেলায়েত হোসেন জানান,হাসপাতালে যেসব শিশুরা আসছে তাদের মধ্যে বেশীরভাগ শিশুই নিউমেনিয়া, শ্বাস কষ্ট, জ¦র ও ব্রংকাইটজ রোগে আক্রান্ত। তিনি আরো বলেন,গত কয়েকদিন ধরে সারা দেশে সৈত্য প্রবাহ চলছে। সাথে বইছে হিমেল ঠান্ডা বাসাত এতে করে শীত বেড়েছে। এ কারনে শিশুদের ঠান্ডা লেগে শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহ বেড়ে বিভিন্ন ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এ সময়টিতে মায়েরা শিশুদের প্রতি বেশী শর্তকর্তা অবলম্বন করতে হবে। ঠান্ডার কারনে শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেকটা কমে যায়। একারনে তাদের গরম কাপড় পড়িরে রাখতে হবে। বুকের দুধ বেশী করে খাওয়াতে হবে। সাথে প্রুটিন জাতিয় খাদ্য শিশুদের দিতে হবে। তিনি আরো জানান, চলতি শীত মৌসুমে শিশুদেরকে ঠান্ডা থেকে দূরে রাখা, ধোঁয়ামুক্ত আলোকোজ্জ্বল পরিবেশে যেখানে বাতাস চলাচল করতে পারে সেই অবস্থায় রাখার পরামর্শ দেন তিনি। এছাড়া

শিশুদের শ্বাস কষ্ট হলে অবিভাবকরা যেন ডাক্তারদের পরামশর্ ছাড়া কোন প্রকার ফার্মীসি থেকে অথবা গ্রাম্য কবিরাজ থেকে চিকিৎসা না নেয়। তারা যেন নিকটস্ত কোন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেন। অথবা পাঁশের কোন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে শিশুকে নিয়ে যান।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts