September 20, 2018

১২ ইউনিয়নে বিনাভোটে ১০ চেয়ারম্যান জয়ী

এ কে আজাদ,চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধিঃ  চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত ১০ চেয়ারম্যান প্রার্থী।

এসব ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা কেউ মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন, আবার কারো মনোনয়ন বাছাইয়ে সময় অবৈধ ঘোষণা করা হয়। এছাড়া কয়েকেটিতে মনোনয়নপত্র একজনই (নৌকার) জমা দিয়েছেন।

তবে বিএনপির প্রার্থীদের অভিযোগ রয়েছে, তাদেরকে মনোনয়ন জমা দিতে বাঁধা দেয়ায় তারা মনোনয়ন জমা দিতে পারে নাই। আবার কোনো প্রার্খীর মনোনয়ন নিয়মবহির্ভূতভাবে বাছাইয়ের সময় অবৈধ ঘোষণা করে তা বাতিল করা হয়েছে।

প ম ধাপে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে এ উপজেলা হতে বিনাভোটে বিজয়ী হতে যাচ্ছেন, মোহনপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, ষাটনল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান একেএম শরীফ উল্যাহ সরকার, ইসলামবাদ ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সাজেদুল হাসান বাবু বাতেন, বাগানবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের মনোনীত বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ নান্নু মিয়া, সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের মনোনীত লোকমান আহম্মেদ মুন্সি, দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের মনোনীত দেওয়ান আবুল খায়ের, এখলাছপুর ইউনিয়ন পরিষদে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের মনোনীত আলহাজ্ব মোসাদ্দেক হোসেন মুরাদ, ফতেপুর পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের মনোনীত নূর মোহাম্মদ।

আর ৬ষ্ঠ ধাপে অনুষ্ঠিতব্য গজরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব মোহাম্মদ হানিফ মিয়া ও কলাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী হচ্ছেন সোবহান সরকার সুভা। এঁদের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আর নেই। তাই এঁরা এখন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় চেয়ারম্যান হওয়া শুধু সময়ের ব্যাপার।

তবে জহিরাবাদ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান আলী আক্কাছ বাদল (আওয়ামী লীগ), সোলাইমান (বিএনপি) ও মঞ্জুর মোর্শেদ (স্বতন্ত্র) এবং ফরাজীকান্দি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ইঞ্জিনিয়ার রেজাউল করীম (আওয়ামী লীগ), সৈয়দ হোসেন (ইশা), আবদুল লতিফ (বিএনপি) ও শাখাওয়াত হোসেন গাজী (স্বতন্ত্র)।

বর্তমান চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশের মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণার পর উচ্চ আদালতে বৈধতা চেয়ে রিট করলে আগামী রোববার শুনানির দিন ধার্য করা হয়। এ দু’ ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী রয়েছে।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/১৪ মে ২০১৬

Related posts