September 22, 2018

হোয়াটস অ্যাপ ব্যবহারকারীদের জন্য ছয়টি টিপস!

হোয়াটস অ্যাপ ব্যবহারকারীরা হয়তো এই ৬টি তথ্য জানেন না?

ইলিয়াছ মাহমুদ: স্মার্ট ফোনে হোয়াটস অ্যাপ থাকবে না এটা যেন কখনওই হতে পারে না। তেমনি স্মার্ট ফোনে হোয়াটস অ্যাপ না থাকলেও নিজের কম্পিউটারে এই অ্যাপ ডাউনলোড করে নিয়ে দিব্যি চালিয়ে দিচ্ছেন অনেকেই। তাই ফোন খুব একটা দরকারি নয় এখন। তবে এই অ্যাপের মাধ্যমে গান, ফটো, ভিডিও শেয়ার করার সঙ্গে ভয়েস কল এবং নিজের বর্তমান ঠিকানা অন্যের কাছে শেয়ার করতেও অনেকেই জানেন। কিন্তু এই অ্যাপের এমন কতগুলি অজানা তথ্য যা অনেকেই জানেন না। তাই এবার যেনে নিন এক চুটকিতে… ১. যদি আপনি আপনার চ্যাট থেকে কোনও চ্যাট লুকিয়ে রাখতে চান অথবা অনেক বেশি সময়ের মানুষটির সঙ্গে কথা বলতে না চান তাহলে আর্কাইভ চ্যাটে ক্লিক করুন। আপনি আপনার সব কটা চ্যাটকেই লুকিয়ে রাখতে পারেন। শুধু আপনাকে চ্যাট সেটিং অপশনে গিয়ে আর্কাইভ অল চ্যাটে ক্লিক করতে হবে। এর জন্য আপনাকে আলাদা করে কোনও চ্যাট ডিলিট না করে অথবা মেমরি কার্ডে তা সেভ করে না রাখলেও চলবে। ২. এখন হোয়াটস অ্যাপে গ্রুপে কথা বলতে অনেকেই পছন্দ করেন। এতে সকলের সঙ্গেই কথা বলা হয়ে যায়। কিন্তু তা বললে কি হবে। ইন্টারনেট অন করতে না করতেই এক নাগাড়ে সমস্ত টুং টাং শব্দে ম্যাসেজ ঢুকতেই থাকে। তাতে কিছুটা হলেও বিরক্তি অনুভূত হয়। কিন্তু ফোন সাইলেন্ট করে দিলে তো ফোন আসলে জানতে পারা যাবে না। তাহলে গ্রুপ অন করে মেনুতে গিয়ে মিউটে ক্লিক করলেই হয়ে যাবে। আপনি কতদিনের জন্য গ্রুপের আওয়াজ বন্ধ করতে চান তা অনায়াসেই করতে পারেন। ৩. আপনি শেষবার কখন হোয়াটস অ্যাপে এসেছেন তাও লুকিয়ে রাখা সম্ভব। সেটিং-এ গিয়ে অ্যাকাউন্টে ক্লিক করুন। এবার প্রাইভেসিতে গিয়ে লাস্ট সিন অপশনে যান। সেখান থেকেই লাস্ট সিন বন্ধ করে দিন। এই অপশনে ক্লিক করার ফলে আপনার লাস্ট সিন যেমন কেউ দেখতে পারবে না তেমনই আপনিও কারোর লাস্ট সিন দেখতে পারবেন না। ৪. আপনি আপনার হোম স্ক্রিন থেকে অনায়াসেই চ্যাট করতে পারবেন। যেমন ধরুন আপনার তৈরি করা গ্রুপ অথবা চ্যাটের ওপর অনেকখন ধরে ক্লিক করে থাকুন। এবার অ্যাড চ্যাট শর্টকাট অপশন আসলে সেখানে ক্লিক করে হোম স্ক্রিন থেকে চ্যাট করা শুরু করে দিন। ৫. আপনি মোবাইল ডাটা অন করে ছবি, ভিডিও এবং অডিওর মধ্যে কোনগুলোকে অটো ডাউনলোড করতে চান তাও করতে পারেন। যেমন আপনি যদি মনে করেন ফোনের ডাটাকে খুব বেশি ব্যবহার করবেন না। তাহলে অডিও এবং ভিডিও বন্ধ করে রাখতে পারেন। তাহলে ইন্টারনেট অন করার সঙ্গে কোনও অডিও এবং ভিডিও ঢুকবে না। সেটিং-এ গিয়ে চ্যাট সেটিং তারপর মিডিয়া অটো ডাউনলোডে ক্লিক করলেই হবে। ৬. কোনও ম্যাসেজ পাঠানোর পরে তার পাশে দুটো নীল রাইট ক্লিক মানেই তা পড়া হয়েছে। এই কথা সকলেই জানেন, কিন্তু জানেন কি কখন পড়া হয়েছে সেটাও জানতে পারা যায়? পাঠানো ম্যাসেজের ওপর চেপে ধরে থাকুন, সেখান থেকেই দেখতে পাবেন কখন পড়া হয়েছে ম্যাসেজটি।

Related posts