September 25, 2018

হুমকির মুখে আত্রাই নওগাঁ সড়ক সহ এলাকাবাসী!

একেএম কামাল উদ্দিন টগর,নওগাঁ প্রতিনিধিঃ আত্রাই নদীতে  ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করে আত্রাই-নওগাঁ সড়কের পার্শ্বে বালুর স্থুপরাখা হয়েছে। গতকাল সরেজমিনে ভূক্তভোগীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়,উপজেলার সদুপুর গ্রামের সংলগ্ন আত্রাই নদীতে  ড্রেজার মেশিন বসিয়ে  স্থানীয় প্রভাবশালীরা অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। অব্যাহত বালু উত্তোলনের ফলে উপজেলার জাত-আমরুলসহ সদুপুর এলাকায় নদীর পারে ব্যাপক ভাঙ্গন শুরু হয়েছে।  এমনকি কয়েকটি বসতবাড়ি ইতিমধ্যেই নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।  এছাড়া সদুপুর গ্রামে আত্রাই-নওগাঁ মহাসড়কে পার্শ্বে বালু স্তুপ রাখার কারনে মানুষও যানবাহন চলাচলের খুবই দুরুহ হয়ে পড়েছে।।অপর দিকে আত্রাই-নওগঁ,আত্রাই-রাজশাহী,আত্রাই-বগুড়া,আত্রাই-নাটোর চলাচলের একমাত্র ভরসা আত্রাই নদীর ওপর নির্মিত বেইলী সেতুটি হুমকির মুখে পড়েছে।

এদিকে বালু উত্তোলন অব্যহত থাকলে যে কোন সময় আত্রাই নদীর বেইলী সেতু সহ আশে পার্শ্বের আরো অর্ধশতাধিক বসতবাড়ি ও শত শত বিঘা ফসলি জমি ধসে নদীগর্ভে যেতে পারে এমন শঙ্কার কথাই জানালেন এই এলাকার ভূক্তভোগীরা। এরপরও  তাদের দমানো  যাচ্ছেনা। বরং  তারা ওই স্থানেকে বালুমহাল হিসেবে চিহ্নিত করে সরকারী ভাবে ইজারা নেয়ার পাঁয়তারা চালাচ্ছেন। তবে বালুদস্যুদের বিরুদ্ধে এলাকাবাসী বালূ উত্তোলন বন্ধ করতে কয়েক বার আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত আভিযোগ করেছেন।অপর দিকে আত্রাই গুরনদী বালু মহালের ইজারাদার শ্রী নীরেন মহন্ত আত্রাই নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারনে মোঃ বিপ্লব সরদার সহ ৮জন কে বিবাদী করে নওগাঁ জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করে। আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ৬/৯/১৫ইং তাং রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর,নওগাঁ অবৈধবালু উত্তোলনও বিক্রয়কারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের লক্ষে আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে একটি পত্র প্রেরন করেন।

কিন্তু উপজেলা নির্বাহী অফিসার আত্রাই উক্ত পত্র পাওয়ার ৩মাস অতিবাহীত হলেও কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় এলাকাবাসী ও ভূক্ত ভোগীরা হতাশ। আবেদনকারী ব্যবসায় ক্ষতি গ্রস্ত হয়ে পুনরায় গত ৯/১১/১৫ইং তারিখে বিভাগীয় কমিশনার,রাজশাহী বরাবরে ও ২৫/১১/১৫ইংতাং জেলা প্রশাসক,নওগাঁ বরাবরে পৃথক পৃথক লিখিত অভিযোগ করেন। ভোঁপাড়া ইউনিয়নের সদুপুর এলাকায় আত্রাই নদীতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালী দীর্ঘদিন থেকে বালু উত্তোলন করছে।ফলে এলাকার মানুষের ও আত্রাই-নওগাঁ গামী যাত্রী সাধারণ সড়কের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম আত্রাই নদীর ওপর বেইলী সেতুর দক্ষিন- পশ্চিম পারে ভয়াবহ ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। এমনকি ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি বাড়িও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নদী গর্ভে ও ২টি পাটের গুদাম নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। আর হুমকির মূখে রয়েছে আত্রাই সরকারী খাদ্য গুদাম,আহসানগঞ্জ সুইজগেট,আত্রাই বান্দাইখাড়া সড়ক,আত্রাই পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি  সহ অসখ্য বসতবাড়ি ও ফসলি জমি।

ভূক্তভোগী জাহাঙ্গীর সরকার, আজাহার আলী মাষ্টার,মোল্লা মহসীন আলী,মন্টু তালুকদার একাধীক ব্যক্তি জানান, স্বাধীনতার দীর্ঘ সময় পর এই বেইলী সেতুটি নির্মান হয়েছে।এর আগে এই অ লটি অবহেলিত ছিল।যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল একেবারেই বেহাল। বিগত ১৪বছর আগে আত্রাই নদীর ওপর বেইলী সেতুটি নির্মত হলে সবক্ষেত্রেই উন্নয়নের ছোঁয়া লাগে। কিন্তু অব্যাহত ভাবে বালূ উত্তোলনের ফলে সেতুটি হুমকির মুখে রয়েছে। এভাবে বালূ উত্তোলন অব্যহত থাকলে আত্রাই বেইলী সেতুটিও জিয়নী পাড়া গ্রামটি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করেন। এসব এলাকার ভুক্তভোগী মানুষরা। এ প্রসঙ্গে অভিযুক্ত ব্যক্তিগনের সংগে মোবাইলে যোগাযোগ করতে চাইলে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এপ্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মোখলেছুর রহমান এর সংগে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts