November 20, 2018

হামলাকারী নিব্রাসের টুইটার-ফেসবুক অ্যাকাউন্ট কি বলে?

ঢাকাঃ  গুলশানের রেস্তোরাঁয় হামলার কয়েক ঘণ্টা পর আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন আইএসের মুখপত্র হিসেবে পরিচিত ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স’যে পাঁচ সন্ত্রাসীর ছবি প্রকাশ করা হয়।

এরই কিছুক্ষণ পর ওই হামলাকারীদের মরদেহের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হয়। তারপর থেকে তাদের পরিচয় নিয়ে গুঞ্জন ওঠে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে। বের হতে থাকে তাদের আসল পরিচয়।

হামলাকারী ছয়জনের মধ্যে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। নিহতদের একজনের নাম নিব্রাস ইসলাম। যিনি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র। ছবি প্রকাশের পরই তার পরিচয় শনাক্ত করে পরিচয় তুলে ধরেন নিব্রাসের সহপাঠীরা।

পরিচয় শনাক্তের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার অ্যাকাউন্টিতে দেখা যায় মালেশিয়ার মোনাশ ইউনিভার্সিটির ছাত্র ছিলেন তিনি। এর আগে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন নিব্রাস।

তার ছবি সম্বিলিত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ফেব্রুয়ারির ৪ তারিখে পোস্ট করা এক স্ট্যাটাসে তাকে উদ্দেশ্য করে একজন লিখেছেন- ‘ভাইজান, আপনি কই? প্লিজ এসব ঢং বন্ধ করে বাসায় যান। এভরি বডি ইজ ওরিড।’

যদিও ওই পোস্টের কোনো রিপ্লাই দেননি নিব্রাস। এদিকে, শুক্রবার (০১ জুলাই) হলি আর্টিজেন রেস্টুরেন্টে হামলার ঘটনায় নিব্রাসের ছবি প্রকাশের পর থেকে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি সাময়িকভাবে বন্ধ দেখা যায়।

এদিকে, তারই ছবি সম্বলিত টুইটার অ্যাকান্টটি খোলা হয়েছে ২০১৪ সালের অক্টোবরে। এ পর্যন্ত তিনি টুইট করেছেন আটটি। টুইটারে তাকে ফলো করেন ১৪৪ জন। তিনি নিজে ফলো করেন ১২ জনকে। তার আটটি টুইটের সব কটই প্রেম সংক্রান্ত।

নিব্রাস ইসলাম সর্বপ্রথম টুইট করেন ২০১৪ সালের ১৫ অক্টোবর। যেখানে তিনি কাউকে উদ্দেশ্য করে টুইট করেছেন। ইংরেজিতে টুইট করা ওই বাক্যের বাংলা অর্থ করলে দাঁড়ায়- ‘আমি তোমাকে ভালো হিসেবে জানি। একদিন তুমি তা অনুধাবন করতে পারবে।’

তার দ্বিতীয় টুইটে লেখেন- ‘আমাকে তোমার কখনই প্রয়োজন নেই। তার সঙ্গেই তুমি ভালো থেকো। প্রত্যেকেই আমার চেয়ে ভালো। তুমি জানো আমাকে কোথায় খুঁজতে হবে।’

একই বছরের ১৭ অক্টোবর তিনি তৃতীয় টুইট করেন। যেখানে লেখা ছিল- ‘আমি তোমার জন্য সব সময়ই রয়েছি। আমাকে তোমার যখন প্রয়োজন হবে তখন তুমি আমাকে কল করো।’

এরকম একই দিন আরেকটি টুইট করেন তিনি। সেখানে কোনো একজনকে উদ্দ্যেশ্য করে তিনি বলেন- ‘তিনি তার কলের অপেক্ষায় রয়েছেন। আর এখানে তাকে পাওয়া যাবে।’

নভেম্বরের ২ তারিখে তিনি টুইট করেন- ‘গুডবাই ফর গুড।’

সর্বশেষ তিনি ২০১৪ সালের ডিসেম্বর মাসে একটি টুইট করেন। সেখানে তিনি লেখেন- ‘আলহামদুলিল্লাহ। হ্যাপিনেস ইজ বিং উইথ ইওর লাভড ওয়ানস অ্যান্ড বিং উইথ ফ্রেন্ডস ইউ মিসড।’

তার এসব টুইট নির্দেশ করছে তিনি কোনোভাবে প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়েছিলেন। তবে কাকে উদ্দ্যেশ্য করে এই টুইটগুলো করেছেন তা জানা যায়নি।

Related posts