November 19, 2018

সড়কের পাশে মিলল নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ

hব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলা থেকে নিখোঁজের এক দিন পর এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গত সোমবার সন্ধ্যায় বিজয়নগর উপজেলার চান্দুরা ইউনিয়ন থেকে তার লাল উদ্ধার করা হয়।

নিহত মোশারফ বাঞ্ছারামপুর গ্রামের আবদুল বাতেনের ছেলে। পুলিশ বলছে, তার বিরুদ্ধে বাঞ্ছারামপুর থানায় আটটি মাদকের মামলা রয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, রোববার সন্ধ্যায় চার ব্যক্তি একটি অটোরিকশায় করে ওই গ্রামে আসে। তারা মোশারফকে অটোরিকশায় তুলে গামছা দিয়ে মুখ পেঁচিয়ে ফেলে। কেউ বাধা দেওয়ার আগেই তারা গ্রাম ত্যাগ করে।

মোশারফের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম বলেন, ‘সোমবার আদালত এবং জেলখানায়ও খবর নিয়েছি আমরা। পরে ওই দিন সন্ধ্যায় ফেসবুক থেকে জেনেছি, আমার স্বামীর লাশ বিজয়নগর থানার পুলিশ উদ্ধার করেছে।’ আনোয়ারা আরও বলেন, ‘যারা নিয়ে গেছে আমি তাদের কাউকেই দেখিনি, চিনিও না। যারা তুলে নিয়ে গেছে, তারাই আমার স্বামীকে হত্যা করেছে।’

বিজয়নগর থানার ওসি মো. আলী আশরাফ গতকাল মঙ্গলবার বলেন, ‘চান্দুরা ইউনিয়নের শ্যামলীহাট এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশ থেকে সোমবার সন্ধ্যায় অজ্ঞাত একজনের লাশ উদ্ধার করে আমরা জেলার সব থানায় ছবি পাঠাই। পরে রাতে বাঞ্ছারামপুর থানার কাছ থেকে জানতে পারলাম লাশটি বাঞ্ছারামপুর উপজেলার মোশারফ হোসেনের। তার গলায় ও হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ হত্যা মামলা করেছে। লাশের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।’

Related posts