September 20, 2018

স্কুলে ঢুকে ৮ শিক্ষককে পেটালো আ’লীগ কর্মীরা!

533
জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ   ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হরিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের হামলায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ ৮ জন শিক্ষক আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে নুর ইসলাম, স্বপন কুমার ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জেসমিন নাহার রক্তাক্ত জখম অবস্থায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অন্যান্য শিক্ষকরা হলেন, রেজাউল ইসলাম, আতিয়ার রহমান, জরিনা খাতুন, ফাতেমা খাতুন ও মাওলানা জব্বারুল ইসলাম। স্কুলের কমিটি গঠন নিয়ে দ্বন্দের জের ধরে আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এই হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার সময় স্কুলের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা আতংকিত হয়ে এদিক ওদিক ছুটোছুটি করতে থাকে।

চোখের সামনে শিক্ষার্থীদের পেটানোর ঘটনায় স্তম্ভিত হয়ে যায় শিক্ষার্থীরা। স্কুলের ধর্মীয় শিক্ষক মাওলানা জব্বারুল ইসলাম জানান, হরিপুর স্কুলের কমিটি গঠন নিয়ে এক বছর ধরে স্কুলের বেতন বিলে সাক্ষর করছেন জেলা প্রশাসক। আগের কমিটির সভাপতি ছিলেন আওয়ামীলীগ নেত্রী মাহফুজা তাহের। তাকে বাদ দিয়ে নতুন কমিটির সভাপতি হন স্থানীয় বিষয়খালী বাজারের গ্রাম্য চিকিৎসক মোহাম্মদ আলী। পরিচালনা কমিটির পরিবর্তনের কারণে সাবেক সভাপতির অনুগত প্রধান শিক্ষক আলমগীর হোসেন মন্টুকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করা হয়। মন্টু আদালতের আশ্রয় নিলে আদালত তাকে স্বপদে যোগদান করতে নির্দেশ দেয়। কিন্তু বর্তমান ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জেসমিন নাহারসহ অন্যান্য শিক্ষকরা তাকে যোগদানে বাধা সৃষ্টি করেন। এ নিয়ে এলাকায় আওয়ামীলীগের দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

এদিকে সাবেক সভাপতি মাহফুজা তাহের কমিটি গঠনের দিন মারামারির কারণে স্কুলের ৬ জন শিক্ষকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। সেই মামলার হাজিরা দিতে তার গতকাল বৃহস্পতিবার ঝিনাইদহের আদালতে আসেন। এই সুযোগে সাবেক সভাপতি আওয়ামীলীগ নেত্রী মাহফুজা তাহের ও তার অনুগত প্রধান শিক্ষক আলমগীর হোসেন মন্টুর লোকজন স্কুলে ঢুকে শিক্ষকদের বেধড়ক পেটাতে শুরু করেন। তাদের পিটুনিতে ৩ মহিলা শিক্ষকসহ ৮ জন আহত হন। ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসান হাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নিয়োগ ও স্কুলের কমিটি গঠন নিয়ে এলাকায় সরকারী দলের মধ্যে দুইটি পক্ষের সৃষ্টি হয়েছে। তারা পাল্টাপাল্টি পরিচালনা কমিটি গঠন করেন।

সেই ঘটনার জের ধরে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি মনে করেন। ঘটনাস্থলে যাওয়া ঝিনাইদহ সদর উপজেলার নলডাঙ্গা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ গোলাম হোসেন জানান, স্কুলের প্রায় সব শিক্ষককে কমবেশি মারধর করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩ জনকে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে স্কুলের সভাপতি দাবীদার আওয়ামীলীগ নেত্রী মাহফুজা তাহের জানান, তিনি কারো বিরুদ্ধে মামলা করেন নি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts