November 19, 2018

‘স্কুলশিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় বিব্রত জাতীয় পার্টি’

arshed

শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে সেলিম ওসমানের বিষয়ে পদক্ষেপ প্রত্যাশা করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিমের বক্তব্যের প্রেক্ষাপটে সোমবার জি এম কাদের জানান, স্কুলশিক্ষককে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় দলীয় সংসদ সদস্য এ কে এম সেলিম ওসমানকে নিয়ে ‘বিব্রত’ বোধ করছে তার দল।

দলটির কো চেয়ারম্যান জি এম কাদের বলেন, “গোটা ঘটানাটা বিব্রতকর। জাতীয় পার্টির ইতিহাসে এ রকম ঘটনা নেই। দলের কোনো নেতা-কর্মী প্রকাশ্যে এভাবে কাউকে অপমান করেছে- এমন অভিযোগ আমাদের কাছে কখনও আসেনি। বিষয়টিতে দলের ভাবমূর্তি ক্ষু্ন্ন হয়েছে।”

ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে ১৩ মে নারায়ণগঞ্জ বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে একদল লোক মারধর করে। পরে তাকে কান ধরিয়ে উঠ-বস করান ওই আসনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।

সমালোচনার মুখে থাকা সেলিম ওসমান নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী ওসমান পরিবারের সদস্য। সেলিম তার ভাই নাসিম ওসমানের মৃত্যুর পর জাতীয় পার্টিতে নাম লিখিয়ে তার আসনে উপনির্বাচনে বিজয়ী হন।

জি এম কাদের বলেন, “এ ঘটনায় আমাদের দলের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করেছি। গত কয়েকদিনে যারা আমাকে ফোন করেছেন, প্রত্যেকেই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। জাতীয় পার্টিতে এ ধরনের ঘটনা তারা দেখেননি।”

ওই ঘটনায় নিজের দায় অস্বীকার করে ক্ষমা চাইতে অস্বীকৃতি জানানো সেলিম ইতোমধ্যে জাতীয় পার্টির নীতি-নির্ধারকদের চিঠি দিয়েছেন। রোববার পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সঙ্গেও কথা বলেছেন।

এ বিষয়ে কাদের বলেন, “চেয়ারম্যান সাহেব এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কিছু জানাননি; আর চিঠিতে তিনি নিজের পজিশন তুলে ধরেছেন। আমরা এটা দেখব।”

এ বিষয়ে জাতীয় পার্টি কী পদক্ষেপ নেবে- প্রশ্ন করলে জাপা চেয়ারম্যান এরশাদের ভাই কাদের বলেন, “সরকার বিষয়টিকে গুরুত্ব সহকারে দেখছে। ইতোমধ্যে সরকার কমিটি গঠন করেছে। আদালতও এ বিষয়ে রুল জারি করেছে।

“কমিটির প্রতিবেদন এখনও আমাদের হাতে এসে পৌঁছায়নি। আমরা এর জন্য অপেক্ষা করছি। প্রতিবেদন পেলেই দলের নীতি-নির্ধারণী ফোরাম এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।”

Related posts