February 16, 2019

সুইস-ব্যাঙ্ক ভারতে? মধ্যপ্রদেশে ৪৩ লক্ষ টাকা সহ ধৃত টিভি অভিনেতা, চেন্নাইয়ে উদ্ধার ৯০ কোটি টাকা, ১০০ কেজি সোনা

(এম বি ফয়েজ) নয়াদিল্লি: সুইস ব্যাংকে গচ্ছিত ভারতীয় কালো-টাকা ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতিতে ভোট যুদ্ধ জয়ী হওয়া মোদি সরকার কালো-টাকার বিরুদ্ধে গৃহীত প্রথম পদক্ষেপই যেন সুইস-ব্যাঙ্ককে ভারতের মাটিতে নিয়ে এল।   নোট বাতিলের পর দেশের বিভিন্ন স্থানে কালো টাকার সন্ধানে চলছে তল্লাশি। প্রতিদিনই দেশে মোটা অঙ্কের অর্থ বাজেয়াপ্ত হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এবার মধ্যপ্রদেশে ৪৩ লক্ষ টাকা সহ ধরা পড়লেন এক অভিনেতা। এই অভিনেতাকে ক্রাইম পেট্রোল সিরিয়াল সহ বেশ কয়েকটি সিনেমাতেও ছোটখাটো দৃশ্যে দেখা গিয়েছে। তাঁর কাছ থেকে নতুন ২০০০ টাকার নোটে ৪৩ লক্ষ টাকা পাওয়া গিয়েছে।  তাঁর নাম রাহুল চেলানি। ইটারসি থেকে হোসঙ্গাবাদ যাওয়ার পথে তাঁকে গ্রেফতার করে হোসাঙ্গাবাদ পুলিশ।
অভিনয়ের পাশাপাশি রিয়েল এস্টেট ব্যবসার সঙ্গেও জড়িত রাহুল। পুলিশ জানিয়েছে, রাহুলের কাছ থেকে মোট ৪৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। যদিও রাহুলের দাবি, এই টাকার সম্পূর্ণ হিসেব তাঁর কাছে রয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে, এত টাকা নগদ কোথা থেকে পেলেন তিনি এবং কেনই বা ওই টাকা হোসঙ্গাবাদ নিয়ে যাচ্ছিলেন। পুলিশ এই ঘটনা সম্পর্কে আয়কর বিভাগকেও অবহিত করেছে।
মধ্যপ্রদেশেই পুলিশ এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে নতুন নোটে ১৯ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে। পুলিশের সন্দেহ ওই ব্যবসায়ী কালো টাকা সাদা করার কাজে যুক্ত থাকতে পারেন।
গুজরাতের পোরবন্দরে ২৫ লক্ষ টাকা সহ দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাজেয়াপ্ত অর্থের মধ্যে ২১ লক্ষই ২০০০-এর নোটে। এই ঘটনায় একজন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন। পলাতক এক জেলা কোঅপারেটিভ ব্যাঙ্কের কর্মী বলে জানা গিয়েছে।
অন্যদিক, চেন্নাইয়ে নোট বাতিলের পর এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি অর্থ বাজেয়াপ্ত করার ঘটনা ঘটেছে। আয়কর বিভাগ ৯০ কোটি নগদ ও ১০০ কেজি সোনা বাজেয়াপ্ত করেছে। চেন্নাইয়ে যে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে এই সব বাজেয়াপ্ত হয়েছে তাঁর নাম শেখর রেড্ডি।

গ্লোবেল নিউজ ব্যুরো/

fotorcreated23-580x395

Related posts