January 16, 2019

সিলেট-২ আসনে জাপা’র সঙ্গে সমঝোতার বলি হলেন শফিক চৌধুরী!

received_578397359246223বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি :: নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ আসনে নিখোঁজ বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী এম ইলিয়াস আলীকে পরাজিত করে চমক সৃষ্টিকারি সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শফিক চৌধুরী অবশেষে তার সাজানো আসনটি আবারও আওয়ামী লীগের হাত ছাড়া হল। আসন্ন একদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাপা’র সঙ্গে সমঝোতার ফের বলি হলেন ২৪ ঘন্টার রাজনীতিবিদ খ্যাত শফিক চৌধুরী।

নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন হাত ছাড়া না হলেও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শফিক চৌধুরীর জন্য সিলেট-২ আসনে পথের কাটা হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির যুগ্ন-মহাসচিব ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়া। সমঝোতার মাধ্যমে এই আসনে শফিক চৌধুরীকে বাদ দিয়ে জাপা নেতা এহিয়া’কে দিয়ে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেয় মহাজোট। তবে এ নির্বাচনে বিএনপি না আসায় জাপা প্রার্থী এমপি নির্বাচিত হন। দশম জাতীয় নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থীর পক্ষে আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতারা প্রচার-প্রচারনায় অংশ নেন। ফলে এ আসন মহাজোট প্রার্থী এহিয়া চৌধুরী লাঙ্গল প্রতিক নিয়ে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন। কিন্তু নির্বাচনের বছরখানিক পর আওয়ামী লীগের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয় এমপি এহিয়া চৌধুরীর। এরপর থেকে তিনি জাতীয় পার্টিকে নিয়ে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প বন্টন করেন।

জানাযায়, শফিক চৌধুরী নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন করতে যুক্তরাজ্য আ’লীগের যুগ্ন-সম্পাদকের পদ নিয়ে দেশে ফিরে এই আসনে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি হয়ে জোর প্রচারনা চালিয়ে যান। এসময় মনোনয়ন নিয়ে তার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বিশ্বনাথ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মুহিবুর রহমান। অবশেষে মুহিবুর রহমানকে হারিয়ে মনোনয়ন দৌড়ে বিজয়ী হন শফিক চৌধুরী। নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিখোঁজ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীকে অল্প ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে চমক সৃষ্টি করেন শফিক চৌধুরী। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও এই আসনে তার সাথে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি ছিলেন ছয়জন আ’লীগ নেতা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ছয়জন প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু তাদের সাথেও আ’লীগের মনোনয়ন দৌড়ে শফিক চৌধুরী এগিয়ে ছিলেন। আর এই মনোনয়ন পাওয়ার পর সিলেট-২ আসনে নির্বাচন করতে তিনি দলীয় মনোনয়ন ফরমও জমা দেন। কিন্তু মহাজোটের বেড়া জালে আটকা যান শফিক চৌধুরী। এবারও মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে এহিয়া চৌধুরী রয়েছেন। তবে একাদশ সংসদ নির্বাচনে এ আসনে আওয়ামী লীগ নেতারা কার পক্ষ কাজ করবেন কেবল এখন দেখা বিষয়।

Related posts