September 19, 2018

সান্ধ্য আইনের দাবিতে চবির ছাত্রীদের বিক্ষোভ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া হলের সান্ধ্য আইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ ও অবস্থান ধর্মঘট পালন করেছে আবাসিক শিক্ষার্থীরা। একইসঙ্গে হল প্রভোস্ট ড. জরিন আখতারের পদত্যাগ দাবি করে তারা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে হলের বাইরে বেরিয়ে আন্দোলনরত ছাত্রীরা শহীদ মিনারে অবস্থান নেয়। পরে সেখানে তারা রাত ১০টা পর্যন্ত অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে।

হলটির আবাসিক শিক্ষার্থীরা জানান, কয়েকদিন ধরে সন্ধ্যা ৭টা পর যারা হলে প্রবেশ করছে তাদেরকে না জানিয়েই তাদের বিরুদ্ধে হল প্রভোস্ট বিভাগে ও অভিভাবকদের কাছে শোকজ নোটিশ পাঠিয়েছে। এছাড়া সন্ধ্যা ৭টা পর হলে প্রবেশ করতে যাওয়া শিক্ষার্থীদের বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হতো।

হলটির আবাসিক ছাত্রী সিফাত জানান, আমরা যারা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি তারা বেশির ভাগ মধ্যবিত্ত ও দরিদ্র পরিবারের সন্তান। অনেকেরই টিউশনি করে পড়াশোনার খরচ চালাতে হয়।সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ক্লাশ চলে। কাজেইই টিউশনি করাতে হলে সন্ধ্যার সময়টাই বেছে নিতে হয়। টিউশনি করে শহর থেকে ক্যাম্পাসে ফিরতে রাত হয়ে যায়। কিন্তু হল প্রভোস্ট আমাদেরকে নানারকম হয়রানি করে।

তিনি বলেন, এ ধরনের অবান্তর সান্ধ্যা আইন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বাতিল করা উচিৎ।

হলটির শিক্ষার্থীরা হয়রানিমূলক আচরণের জন্য হল প্রভোস্টের পদত্যাগ দাবি করেন।

তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে কিছু বলতে রাজি হননি হল প্রভোস্ট ড. জরিন আখতার।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts