November 21, 2018

সাত শিবির নেতাকর্মীকে ২০ বছর করে কারাদণ্ড

আদালত

২০১৩ সালের নাশকতার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় রংপুর জেলা ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাত নেতাকর্মীকে ২০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে একটি বিশেষ আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এ রায় দেন।

সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) জাহাঙ্গীর হোসেন তুহিন বলেন, ২০১৩ সালের ১৮ ও ১৯ মার্চ জামায়াতের ডাকা হরতাল কর্মসূচি চলাকালে নগরীর লালবাগ কলেজ রোডের অনি-অমি ছাত্রাবাসে ১৮ মার্চ রাত ২টার দিকে অভিযান চালায় পুলিশ।

এ সময় শিবির নিয়ন্ত্রিত ওই ছাত্রাবাস থেকে ককটেল, সেভেন আপের বোতলে পেট্রল, লোহার রডসহ দুই শিবির কর্মীকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনায় কোতয়ালী থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুক্তারুল আলম বাদী হয়ে সাতজনের নামে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করেন।

দেড় বছরের বেশি সময় মামলাটি বিচারাধীন থাকার পর মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে এর রায় ঘোষণা করা হয়।

রায়ে অভিযুক্ত শিবির কর্মী আহসান হাবীব, মোস্তফা কামাল, মেহেদী হাসান সৌরভ, রবিউল ইসলাম, মনোয়ার হোসেন, জামিদুল ইসলাম ও মঈনুল ইসলামকে ২০ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত।

রায় ঘোষণার সময় আহসান হাবীব ও মোস্তফা কামাল উপস্থিত থাকলেও অন্যরা পলাতক ছিলেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন চোরাচালান বিশেষ ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পিপি আইনুন নাহার পাপড়ি এবং আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাড. কাওসার আলী।

Related posts