September 24, 2018

সরকারের পতন ঘণ্টা বেজে গেছে : মির্জা আব্বাস

Captureঢাকা::

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, সময় আর বেশি দিন বাকি নেই স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘণ্টা বেজে গেছে। সময় এলেই এই সরকারকে মানুষ আন্দোলনের মাধ্যমে আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপ করবে।

আজ সোমবার বিকেলে তার বাসভবনস্থ কার্যালয়ে নির্বাচনী আসন ঢাকা-৮ ও ৯ এলাকায় বিএনপিরর প্রাথমিক সদস্য নবায়ন ও সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, সরকারের জুলুম ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে জনগণ জিহাদ ঘোষণা করতে প্রস্তুত। নেত্রী যখন ডাক দিবেন তার ডাকে সাড়া দেয়ার জন্য জনগণসহ আমরাও প্রস্তুত আছি। জনগণের মধ্যে সদস্য সংগ্রহ ও নবায়নের বিপুল পরিমাণ সাড়া দেখে আমি অভিভূত। আমার রাজনৈতিক জীবনে জনগণের মাঝে এত সাড়া দেখিনি। যেখানে নিপীড়ন-নির্যাতন চলছে, গুম-খুন চলছে ওই সময়ে সাধারণ মানুষ ঝাঁকে ঝাঁকে বিএনপির সদস্য হতে এগিয়ে আসছেন। এটা আমি মনে করি, শেখ হাসিনার ফ্যাসিস্ট শাসনের বিরুদ্ধে একটি প্রতিবাদ মাত্র। আমি বিশ্বাস করি, এই সদস্য অভিযান বিএনপিকে আরো শক্তিশালী করবে। এই সরকারের পতন আরো তরান্বিত করবে ইনশাল্লাহ। সময় এলেই এই সরকারকে মানুষ আন্দোলনের মাধ্যমে আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপ করবে। তিনি নেতাকর্মীদের সজাগ থাকার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, ঢাকা মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সামছুল হুদা, মহানগর বিএনপির ইউনুছ মৃধা, সাজ্জাদ জহির, হাবিবুর রশিদ হাবিব, যুবদলের রফিকুল আলম মজনু, ইউসুফ বিন জলিল, এম মোনয়েম মুন্না, মাসুদ আহমেদ মিলন, নুরুল ইসলাম খান মাসুদ, কমিশনার গোলাম হোসেন, সেকান্দার কাদের, হারুনুর রশিদ, ফারুক, লিটন মাহমুদ, রফিক হাওলাদার, মিজানুর রহমান সোহেল, দিপু সরকার, জামিলুর রহমান নয়ন, মো: নাছির, এনামুল হক, গিয়াস উদ্দিন মানিক, মোয়াজ্জেম হোসেন, আলমগীর হোসেন, আসলাম, মোহাম্মদ আলী চায়না, হামিদুল হক, আবদুল কাদের জিলন, মো: বাদল, জাহিদ, শাহজাহানপুর থানা মহিলা দলের শাহিদা মির্জা, খিলগাঁও থানা মহিলা দলের মাজেদা বেগম মিতা, মমতাজ বেগম বিনা, সবুজবাগ থানা মহিলা দলের আজমেরী আজিম মেরী, মুগদা থানা মহিলা দলের রায়েদা সুলতানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলে ক্ষমতাসীনরা বিপাকে পড়েছে বলেই সংসদে তারা উল্টাপাল্টা বক্তব্য দিচ্ছে। সংসদে ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে কী নিদারুন অবস্থা। আজকে তারা কোর্টকে তুলোধুনো করছে। যে কোর্ট বা বিচার বিভাগ নিয়ে কথা বলা যায়, সেই কোর্ট সম্পর্কে তারা উল্টোপাল্টা কথা বলছে, তুলোধুনো করছে। কারণ এটা হওয়াতে তাদের অনেক অসুবিধা হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, অন্ততপক্ষে উচ্চ আদালত আজকে স্বাধীনভাবে তাদের ভুমিকা পালন করতে পারছেন। সরকার নিম্ন আদালত নিয়ন্ত্রণে রাখছে। আমি আজকে উচ্চ আদালতের মাননীয় বিচারপতিদের বলতে চাই, সংবিধানে আপনাদের ওপর যে দায়িত্ব দেয়া আছে তা দিয়ে দয়া করে নিম্ন আদালতগুলোকে সরকারের হস্তক্ষেপ ও আধিপত্যমুক্ত করার একটা ব্যবস্থা করুন। সারা বিশ্বে যেভাবে আদালত চলে, বাংলাদেশেও সেভাবে আদালত ও বিচার বিভাগ কাজ করবে- সেটাই আমরা প্রত্যাশা করি। বিচার বিভাগ ও আদালতকে কেউ প্রভাবিত করবেন- এটা বিএনপি কখনো করে নাই, আমরা আশাও করি নাই।

অনুষ্ঠানে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন, বৌদ্ধ ভিক্ষু পার্থ প্রতীম বড়ুয়া অপু, শিক্ষক মোহাম্মদ ইলিয়াস, হিন্দু সম্প্রদায়ের সদস্য সাথী রাণী দাস, হ্যাপী রানী দাস, যদু চন্দ্র দাস, তপন দাস প্রমুখ মির্জা আব্বাসের হাত থেকে দলের সদস্য ফরম সংগ্রহ করেন।

Related posts