November 19, 2018

সংবাদ সম্মেলনে ফিফা সভাপতির একি কান্ড!

\Fifaস্পোর্টস ডেস্ক:- খুবই ব্যস্ত দুটি দিন গেছে। ঠিকমতো ঘুমোতেও হয়তো পারেননি ফিফার আপৎকালীন সভাপতি ইসা হায়াতু। ঘুমোবেন কী করে? দুই ফিফা সহসভাপতির গ্রেফতার হওয়ার বিষয়টি নিয়ে এদিক-সেদিক দৌড়াতে হয়েছে। সঙ্গে ছিল ফিফার পুনর্গঠন বিষয়ক লম্বা বৈঠকের ধকল। একটু ঘুম তো আসতেই পারে। তবে ঘুমোনোর জন্য যে জায়গাটি বেছে নিলেন হায়াতু, সেটি একদমই ঠিক হয়নি। ফিফার ক্যামেরুনিয়ান সভাপতি কিনা টেবিলের ওপর ঘুমিয়ে পড়লেন সংবাদ সম্মেলন চলাকালেই!
ভাবা যায়, সাংবাদিকেরা প্রশ্ন করছেন, আর মাইক্রোফোনের সামনে দিব্যি চোখ বুজে সুখনিদ্রা দিচ্ছেন বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী প্রতিষ্ঠানগুলোর একটির প্রধান! গতকাল জুরিখে সংবাদ সম্মেলনে ঘটেছে এমন অভাবিত ঘটনা। ফিফার সদর দপ্তরে নির্বাহী কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানাতে সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন সেপ ব্ল্যাটারের আপাত-বদলি হিসেবে ফিফা প্রধানের চেয়ারে বসা হায়াতু। সেখানেই এই ‘ঘুম-কাণ্ড’!
গত বৃহস্পতিবার জুরিখের এক হোটেল থেকে গ্রেপ্তার হয়েছেন ফিফার দুজন সহসভাপতি আলফ্রেদো হাউয়িট ও হুয়ান অ্যাঙ্গেল নাপুত। দুর্নীতির অভিযোগে এমনিতেই টালমাটাল ফিফার জন্য এটি ছিল নতুন ধাক্কা। ওই দিনই সংগঠনটির সদর দপ্তরে পূর্বনির্ধারিত বৈঠকে ফিফার পুনর্গঠন বিষয়ক কিছু প্রস্তাব পাস হয়েছে। আগামী ফেব্রুয়ারিতে ফিফার কংগ্রেসে প্রস্তাবগুলো নিয়ে আলোচনা হবে। প্রধান দুটি প্রস্তাব ছিল ফিফার সভাপতি ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তিন মেয়াদের বেশি থাকতে পারবেন না ও ফিফার কমিটিগুলোতে নারী সংগঠকদের সংখ্যা বাড়ানো।

গ্রেপ্তার, বৈঠক-সব মিলিয়ে এমনিতেই একটা অবসন্নতা পেয়ে বসার কথা হায়াতুকে। তাছাড়া ‘নিয়মরক্ষার’ সংবাদ সম্মেলনটাও হলো বেশ ক্লান্তিকর। একটু একঘেয়েমিই পেয়ে বসতে পারে সবাইকে। ফিফা সভাপতি ‘এ ধরনের উদ্যোগ ফিফাকে অনেক এগিয়ে নেবে’, ‘প্রস্তাবগুলো একেকটি মাইলফলক রচনা করবে’ ধরনের মুখস্ত সংলাপ আউড়ে গেলেন। সাংবাদিকেরাও হয়তো উশখুশ শুরু করে দিয়েছিলেন। ফিফার পুনর্গঠন কমিটির চেয়ারম্যান ফ্রাঙ্কো কারার্ড তো বলেই দিলেন, ‘আপনারা হয়তো একটু ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন।’
সাংবাদিকেরা ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলেন কি না সেটি তো আর স্পষ্ট বোঝা যায়নি, তবে হায়াতু নিজে চোখ বুজে ক্লান্তিটা সবাইকে দেখিয়ে দিলেন। গোলডটকম।

Related posts