November 19, 2018

শেখ হাসিনা লুটপাটের রাণী, বললেন খালেদা


ঢাকাঃ  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লুটপাটের রানী বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, দেশের বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থা অত্যন্ত খারাপ। দেশের ব্যাংকগুলো লুটপাট হয়ে গেছে। এর আগে কখনো শুনিনি কেন্দ্রীয় ব্যাংক লুটপাট হতে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইমানুয়েল ব্যাংকুয়েট হলে বাংলাদেশ লেবার পার্টি আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন তিনি।

খালেদা জিয়া বলেছেন, অপরাধ সাধারণ মানুষ করে না, অপরাধ করে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও পুলিশ। আর ধরে ধরে শাস্তি দেওয়া হয় বিএনপির নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষকে।

খালেদা জিয়া বলেন, জঙ্গি দমনের নামে ১৫ হাজার লোক আটক করা হয়েছে, এরা কেউ প্রকৃত অপরাধী না। কেবলমাত্র গ্রেপ্তার বাণিজ্য করার জন্য এদের আটক করা হয়েছে। এরা সবাই বিএনপির নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ।

মাদারীপুরে শিক্ষক হত্যা চেষ্টা মামলার প্রধান সন্দেহভাজন বন্দুক যুদ্ধে নিহত ফাহিমকে পুলিশ অন্যায়ভাবে হত্যা করেছে অভিযোগ তুলে খালেদা জিয়া বলেন, গোলাম ফাইজুল্লাহ ফাহিম ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মারা যাননি। ফাহিমকে পুলিশ হত্যা করেছে। আর এর সঙ্গে জড়িত আছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কারণ তিনি দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে রয়েছেন।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ যতবার ক্ষমতায় এসেছে, ততবারই দেশের অবস্থা খারাপ হয়েছে। স্বাধীনতার পর তারা ক্ষমতায় এসে দেশের অর্থনীতি, শাসন ব্যবস্থা, বিচার ব্যবস্থা সব ধ্বংস করে দিয়েছিল। ফলে এমন দুর্ভিক্ষ হয়েছিল যে, হাজার হাজার লোক তখন মারা গিয়েছিল।

লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমির খসরু মাহমুদ এমপি, এম এ মান্নান, আহমেদ আযম খান, রুহুল আলম চৌধুরী, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান সালেহ প্রিন্স, সহ আইন বিষয়ক সম্পাদক তৈমুর আলম খন্দকার প্রমুখ।

২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য সেলিম উদ্দিন, জাগপার সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, এনডিপির সভাপতি খন্দকার গোলাম মোর্ত্তজা, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি, মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, পিপলস লীগের সভাপতি গরীবে নেওয়াজ, এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, এলডিপির যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাৎ হোসেন সেলিম, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সহ সভাপতি শেখ মুজিবুর রহমান, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দিন মতিন প্রকাশ, জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবীব লিংকন, বাংলাদেশ মুসলীম লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, লেবার পার্টির মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী প্রমুখ।আরটিএনএন

Related posts