November 13, 2018

শীতে বিপর্যস্ত উত্তরাঞ্চল: নেই পর্যাপ্ত সহায়তা

IMG-20170201-WA0000

লন্ডন প্রপ্রতিনিধি :

শীতের দাপট দিন দিন বেড়েই চলেছে। ঘন কুয়াশা আর হিমেল হওয়ায় কাবু হয়ে পড়েছে ছিন্নমূল মানুষ। শীত বস্ত্রের অভাবে মাঘের কনকনে শীতে তাই বিপর্যস্ত জনজীবন। খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছেন অনেকে।

সারাদেশে মাঘের কনকনে শীত। তবে উত্তরাঞ্চলে এর প্রভাব বেশী থাকায় অনেকটাই বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। নেই পর্যাপ্ত সহায়তা। গরম কাপড় না থাকায় খড়কুটো আর কাগজ জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন সিরাজগঞ্জ, রাজশাহী, বগুড়া, রংপুর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাধারণ মানুষ। এমনকি কাজের জন্যও বের হতে পারছেন না শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষ।

ঘন কুয়াশা আর হিমেল বাতাসে পদ্মা পাড়ের সিরাজগঞ্জ জেলায় দিন দিন বাড়ছে শীতের তীব্রতা। দেখা মিলছে না সূর্যের। শীতে অসহায় হয়ে পড়েছে ছিন্নমূল পরিবারসহ নদীর তীরবর্তী চরাঞ্চলের দরিদ্র পরিবারগুলো।

শীতার্ত মানুষের নেই পর্যাপ্ত গরম কাপড়। এলাকায় সরকারী সহায়তা না পওয়ার অভিযোগ করেন সিরাজগঞ্জের সাবেক স্কুল শিক্ষক আবদুর রাজ্জাক। বিগত বছরে আন্তর্জাতিক সংগঠন হোপ ফাউন্ডেশন শীতার্তদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করতো। ওই দাতব্য প্রতিষ্ঠানের  চীফ কন্টাক্ট ফরিদুল ইসলামকে জামায়াত ইসলামীর সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে সরকারি ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগ গত দু’বছর চাঁদা দাবি করে এবং হামলা চালায়। এবার ওই সংগঠনেরও কোনো সহায়তা আমাদের এলাকার মানুষ পায়নি।IMG-20170201-WA0001

একই অবস্থা উত্তরের জেলা পাবনায়। গত কয়েকদিনে শৈত প্রবাহে ঘর থেকে বের হতে পারছেন না অনেকেই। প্রতি বছর জামায়াত ইসলামের সাবেক আমির মতিউর রহমান নিজামী ও বিএনপি নেতা শিমুল বিশ্বাস এলাকায় শতার্তদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করতো। যুদ্ধাপরাধের মামলায় ফাঁসিতে ঝুলানোয় এবার নিজামীর পক্ষ থেকে কোনো সহায়তা পাওয়া যায়নি বলে জানান স্থানীয় ভ্যান চালক রহিম উদ্দিন। সাবেক ছাত্রনেতা সরদার আমিরুল জানান, অর্ধশতাধিক মামলার আসামী হওয়ায় এবছর বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিশেষ সহকারি শিমুল বিশ্বাসও এলাকায় আসতে পারছেন না।

তীব্র শীতে খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন ঠাকুরগাঁওয়ের সাধারণ মানুষও। প্রতি বছর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের পক্ষে এলাকায় শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। এবার সামান্য কিছু কম্বল বিতরণ করেন মির্জা ফখরুলের ভাই। জাতীয় রাজনীতিতে ব্যস্ত থাকায় মির্জা ফখরুল এলাকায় আসেননি।

এদিকে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক দাতব্য সংস্থা হেল্পিং হ্যান্ডের এক কর্মকর্তা নাম না প্রকাশের শর্তে বলেন, সরকারি অনুমোদন না পাওয়ায় তারা এবার বড় কোনো সহযোগিতা করতে পারছে না। তবে অতি গোপনে নাম-পরিচয় ছাড়া কিছু শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন বলে জানান তিনি।

Related posts