September 21, 2018

শীতের ব্যায়াম ও খাবার

আসিফ

শীত এর শূরেতে হালকা কুয়াশার সাথে ঠাণ্ডা হওয়া-শীত আসি আসি করছে। শীতে সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়বে আপনার শরীরে। শীত যত বাড়বে ততই আপনার মধ্যে গুটিয়ে যাওয়ার অনুভূতি কাজ করবে। ঘরের বাইরে বেরুনো ও কাজ করার প্রতি অনীহা সৃষ্টি হবে, তৈরি হবে অলসতা।

তাই শীতেও নিজেকে চাঙ্গা রাখতে প্রয়োজন ব্যায়াম। হালকা ব্যায়াম করতে চাইলে ঘরে কিংবা বাসার ছাদে দৌড়াদৌড়িসহ ব্যায়াম করতে পারেন।

এ ছাড়া পার্কে, খেলার মাঠে কিংবা ব্যায়ামাগারেও ব্যায়াম করতে পারেন।

ব্যায়ামের ধরন অনুযায়ী আপনার খাবার, পোশাক নির্ধারণ করতে হবে।
খাবার : শরীর চাঙ্গা রাখার পাশাপাশি ব্যায়ামের আরো দুটি দিক রয়েছে।

কেউ কেউ শরীরের মেদ ঝরাতে ব্যায়াম করেন, কেউ আবার স্বাস্থ্য আরো সুঠাম করতে ব্যায়াম করেন। সে হিসেবে খাদ্যাভাসও ভিন্ন হবে,

তবে কোনো অবস্থাতেই খালি পেটে ব্যায়াম করা যাবে না।

আর শীতকালে প্রচুর সবজি পাওয়া যায়, আর এ সবজি ব্যায়ামের কারণে আপনার শরীর থেকে বেরিয়ে যাওয়া ক্যালরি ফেরাবে।

এ ছাড়া চিনির শরবত ও প্রচুর পানি পান করতে হবে।

যারা ব্যায়াম করে মেদ ঝরাতে চান তারা সকালে হালকা ফল ও শুকনো জাতীয় খাবার খেয়ে নিবেন। ব্যায়াম শেষেও একই ধরনের খাবার নিতে পারেন, সাথে লেবুর শরবত খেতে পারেন।

রাতে ও দুপুরে ভাতের পাশাপাশি মাছ ও সবজি জাতীয় খাবার গ্রহণ করতে পারেন। তবে ভাতের তুলনায় রুটি বেশি খেলে উপকার পেতে পারেন।

তবে যারা স্বাস্থ্য আরো সুগঠিত করতে চান তাদের খাবারের প্রতি জোর দিতে হবে বেশি। সকালে ব্যায়াম করার আগে রুটি-কলা ও পরে ডিম, দুধ, মুরগির মাংস খেতে পারেন। দুপুরে ও রাতেও সবজি, মুরগি, ডিম, দুধ খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন।

পোশাক : ব্যায়ামের সময় সুতি কাপড় গায়ে দেওয়াই আরামদায়ক। যেহেতু শীত তাই ফুলহাতা টি-শার্ট পরে নিবেন। আর ট্রাউজার, কেডস তো থাকবেই।

এ ছাড়া অলিভ অয়েল মেখে নিবেন শরীরে। সাথে পানির বোতল, তোয়ালে রাখবেন। ব্যায়াম শেষে শরীরের ঘাম শুকিয়ে নিলে গোসল করে নিবেন।

Related posts