November 14, 2018

শিশু সোনিয়ার অকালেই প্রাণ ঝড়ে পড়ার উপক্রম!

image_2176_275516
তোফায়েল হোসেন জাকির, গাইবান্ধা: গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর ভ্যান চালক বাবার মেয়ে মাত্র ২২ মাস বয়সী সোনিয়া বাঁচতে চায়। তার হার্টে ছিদ্রে ধরা পড়েছে। অপারেশনে মোটা অংকের অর্থের প্রয়োজন। অর্থাভাবে চিকিৎসা করতে না পারায় নিষ্পাপ ফুঁটফুঁটে শিশু সোনিয়ার অকালেই প্রাণ ঝড়ে পড়ার উপক্রম হয়েছে। উপজেলা সদর ইউপির ছোট শিমুলতলা গ্রামের ভ্যান চালক বাবা সোলেয়মান ও গৃহিনী মাতা রোজী বেগম দম্পতির দুই মেয়ে সোনিয়া ও সূচনা (৫)।
অভাব-অনটনের সংসারে নিত্যদিন তাদের নুন আনতে পান্তা ফুড়ায়। প্রাথমিক চিকিৎসা ব্যয়সহ নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ইতিমধ্যেই তার বাবার উপার্জনের একমাত্র শেষ সম্বল ভ্যানটিও কয়েক দিন আগে বিক্রি করেছেন। পরিবারটি এখন নিঃস্ব। এক চিলতে ভিটেমাটি ছাড়া তাদের আর কিছুই নেই। জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের শিশু কার্ডিওলজি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আব্দুল্যাহ শাহরিয়ার, ডা. মো. সাখাওয়াত হোসেন, ডা. এসকেএ রাজ্জাক ও ডা. একেএম হানিফ চৌধুরী তাদের ব্যবস্থাপত্রে উল্লেখ করেছেন অপারেশনের মাধ্যমে তাকে সুস্থ করে তোলা সম্ভব।
জরুরি ভিত্তিতে অপারেশনের জন্য প্রায় মোটা অংকের অর্থের প্রয়োজন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। সোনিয়ার অসহায় দরিদ্র পিতা-মাতা দানশীল ও বিত্তবান ব্যক্তিদের কাছ থেকে আর্থিক সহায়তা কামনা করেছেন। সাহায্য পাঠাবার ঠিকানা সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর-২৪৮০৮, সোনালী ব্যাংক লি. পলাশবাড়ী শাখা, গাইবান্ধা অথবা বিকাশ মোবাইল নং ০১৭৪১-৬১১৬৪০।

Related posts