November 13, 2018

শিগগিরই ইরান ৯০টি ট্যাংক পাচ্ছে রাশিয়ার কাছ থেকে !

রাশিয়ার কাছ থেকে শিগগিরই অত্যাধুনিক টি৯০ ট্যাংক পাচ্ছে ইরান। এ খবর জানিয়েছেন ইরানের পদাতিক বাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল আহমাদ রেজা পুরদাস্তান।

তিনি বলেছেন, রাশিয়ার কাছ থেকে এই ট্যাংক কেনার কথাবার্তা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে এবং অচিরেই ইরানের পদাতিক বাহিনীর কাছে টি৯০ ট্যাংক হস্তান্তর করা হবে। খবর- রেডিও তেহরান।

জেনারেল পুরদাস্তান বলেন, ইরানের সশস্ত্র বাহিনীকে এতটা শক্তিশালী হতে হবে যাতে দেশের জনগণ নিজেদের নিরাপত্তার ব্যাপারে স্বস্তি বোধ করে। তার মতে, “শত্রু যখন দেখবে আমাদের আঙ্গুল ট্রিগারের ওপর রয়েছে তখন তারা তাদের অশুভ পরিকল্পনা থেকে পিছু হটবে।”

ইরানের পদাতিক বাহিনীর প্রধান বুধবার তেহরানে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান। রাশিয়ার কাছ থেকে এই ট্যাংক কেনার ফলে ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের চূড়ান্ত পরমাণু সমঝোতা লঙ্ঘিত হবে কিনা-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আমরা নিজেদের প্রতিরক্ষা সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেব।

এক্ষেত্রে পরমাণু সমঝোতা বা অন্য কোনো কিছু লঙ্ঘিত হলো কিনা তা দেখা সশস্ত্র বাহিনীর দায়িত্ব নয়।”

অবশ্য রাসায়নিক, জীবানু ও পরমাণু অস্ত্র নিষিদ্ধ করে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা যে ফতোয়া দিয়েছেন সেকথাও উল্লেখ করেন জেনারেল পুরদাস্তান। তিনি বলেন, “এই তিন ধরনের গণবিধ্বংসী অস্ত্র ছাড়া অন্য সব ধরনের সমরাস্ত্রে আমরা নিজেদেরকে সজ্জিত করবো।”

ইরানের পদাতিক বাহিনীর প্রধান বলেন, ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের ঘটনার পর আমেরিকা তার দেশে হামলা চালাতে চেয়েছিল। কিন্তু দেশ রক্ষায় ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর শক্তিমত্তার কথা বিবেচনা করে সে পথে এগোয়নি ওয়াশিংটন।

বর্তমানে ইরানের পশ্চিম সীমান্তের নিরাপত্তা রক্ষার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “দেশের সব সীমান্তের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য পদাতিক বাহিনী সর্বোচ্চ প্রস্তুত রয়েছে।

ইরান সীমান্তের আশপাশে তাকফিরি সন্ত্রাসীদের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের হুমকি সৃষ্টি করা হলে পিকেকে গেরিলাদের মতো তাদেরকে অঙ্কুরেই বিনাশ করে দেয়া হবে।”

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/মেহেদি/ডেরি

Related posts