September 22, 2018

শামীম ওসমানের প্রশ্নবানে জর্জরিত নাসিকের প্রধান নির্বাহী

168

রফিকুল ইসলাম রফিক,নারায়ণগঞ্জঃ  যানজট নিরসনে তাঁর অস্থায়ী ও স্থায়ী প্রস্তাবনাগুলো উপস্থাপন করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। সোমবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যানজট নিরসনের সভায় এই প্রস্তাব উপস্থাপন করেন তিনি। এছাড়া সভায় শামীম ওসমানের তোপের মুখে পড়েন নাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

এসময় শামীম ওসমান বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) একজন নাগরিক হিসেবে বলছি। আমি ট্যাক্স পরিশোধ করি। আমার ট্যাক্সে সিটিকর্পোরেশন চলে। আমার নির্বাচনী এলাকা এটা না। কিন্তু তারপরও এ এলাকার লোকজন আমাকে বলেছেন বিভিন্ন সমস্যার কথা। সভায় উপস্থিত সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল মজুমদারের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা অন্যদের জমি দখল করে রেখেছেন। আপনারা কখনই ফুটপাত উচ্ছেদ করেননি। কখনও পহেলা বৈশাখ, কখনও ঈদ কিংবা পূজার আগের দিন ফুটপাত উচ্ছেদ করেন। বিকেলেই ফুটপাত বসানো হয়। কেন ? গতকাল সোমবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জ শহর সহ জেলার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে যানজট নিরসনের লক্ষ্যে আলোচনা ও মত বিনিময় সভায় একথা বলেন শামীম ওসমান।

তিনি নাসিকের প্রধান নির্বাহীকে আরো বলেন, হকার্স মার্কেট রাজউকের সেটাও দখল করেছেন। রাজউকের জমিতে ট্যাক্সি ড্রাইভারদের লিজ দিয়েছেন। তাদের কাছ থেকে ২২ লাখ টাকা নিয়েছেন। রাজউক তিন মাস পূর্বে নোটিশ দিলেও আপনারা সরাননি। শামীম ওসমান নাসিকের প্রধান নির্বাহীকে প্রশ্ন করেন, নাসিকে কত হাজার রিক্সার লাইসেন্স দিয়েছেন? নির্বাহী বলেন, ৫  হাজার। শামীম ওসমান বলেন, আমি তো দেখি রাস্তায় দাঁড়িয়েই থাকে ১০ হাজার রিক্সা। একটা প্লেট দিয়ে ৫ টা প্লেট বিক্রি। আপনারাই করেছেন এসব।

নাসিকের প্রধান নির্বাহী মোস্তফা কামাল মজুমদার বলেন, আমরা যানজট নিরসনের জন্য উদ্যোগ নিয়েছি। ফুটপাত উচ্ছেদ করেছি। বাস্তবায়নে কর্মী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। হকারদের জন্য হকার্স মার্কেট তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু হকাররা সেই মার্কেটটি ব্যবহার না করে সেখানে গোডাউন বানিয়ে আবারো ফুটপাতে বসে যাচ্ছে। এ সিটিকর্পোরেশনের হকার্স মার্কেটে ৬৭২ জনকে বসানো হয়েছে। তবে নাসিক লজিস্টিক সাপোর্ট দিতে পারে কিন্তু ল এন্ড অর্ডার দেখার দায়িত্ব না। সেটা তো সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দেখবেন। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ কলেজের সামনে গাড়ি রাখা হয়। বঙ্গবন্ধু সড়কে এসএ পরিবহন মাল ওঠা নামা করে। আবার সেখানে জুডিশিয়াল কোর্ট করা হচ্ছে। এতে আরো যানজট সৃষ্টি হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান মিঞার সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-২(রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গাজী গোলাম দস্তগীর বীর প্রতীক, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মহিদ উদ্দীন, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বিশ্বাস, সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার চৌধুরী, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেন খোকন সাহা, নারায়ণগঞ্জ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট এম ওয়াজেদ আলী খোকন, নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েল, নারায়ণগঞ্জ জেলা হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদ সভাপতি কমান্ডার গোপীনাথ দাস, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি কেইউ আকসির, বিকেএমইএ এর সহ-সভাপতি(অর্থ) জিএম ফারুক, জেলা তথ্য কর্মকর্তা কামরুজ্জামান, কভার্ড ভ্যান ট্রাক মালিক শ্রমিক পরিহন নেতা শফিউদ্দীন প্রধান প্রমুখ।

সভা শেষে সিদ্ধান্তে ডিসি বলেন, আমরা যানজট নিরসনের বিষয়ে নাসিককে চিঠিতে জানাব। তারা যেনো আমাদের সহযোগীতা করে। এছাড়াও সংশ্লিষ্ট বিভাগকেও চিঠি দেয়া হবে। পরে বিশেষ মিটিং করা হবে। মিটিং করেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এছাড়াও যানজট নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন এমপি গাজী গোলাম দস্তগীরও। তিনিও হাইওয়ে সহ  বিভিন্ন স্থানে যানজটের বিষয়ে দ্রুত সমাধান চান।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts