November 13, 2018

‘শহীদুল্লাহ বিএনপির কেউ নয়’

ঢাকাঃ  মালয়েশিয়া প্রবাসী শহীদুল্লাহ নামে জনৈক ব্যক্তি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি’র পদ ব্যবহার করে সংগঠন বিরোধী নানা ধরনের অপপ্রচার ও চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছেন বলে জানিয়েছে বিএনপি।

বিএনপির সহ দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন স্বাক্ষরিত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, শহীদুল্লাহ বিএনপির কেন্দ্রীয় সিনিয়র নেতাদের বিরুদ্ধেও অপপ্রচার চালাচ্ছেন। সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপের জন্য তাকে ইতোপূর্বে মালয়েশিয়া বিএনপি থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। তার সাথে দেশ-বিদেশের বিএনপি নেতাকর্মীদের দলীয় কোনো সম্পর্ক নেই।

এতে আরো বলা হয়, বিএনপি কিংবা এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের কোনো নেতাকর্মী দলীয়ভাবে শহীদুল্লাহর সাথে যোগাযোগ বা সম্পর্ক রাখলে দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত সোমবার রাতে ‘‘প্রবাসী নেতার ‘টাকা খেয়েছেন’ রিজভী-শিমুল!’’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। যেখানে মালয়েশিয়া বিএনপির অনুমোদিত কমিটির সভাপতি শহীদুল্লাহ শহীদ দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ ও চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে অর্থবাণিজ্যের অভিযোগ করেন।

শহীদের দাবি— টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর আবার অন্য এক পক্ষের থেকে সুবিধা নিয়ে আরো একটি কমিটি গঠন করেছেন রিজভী আহমেদ।

তিনি দাবি করেছেন, রিজভী আহমেদ একাধিক ফোন নম্বর থেকে নিজে বারবার ফোন করে একাধিক নম্বরে বিকাশের মাধ্যমে গত মাসে শবে বরাতের পরদিন ২৪ ঘণ্টায় তিন লাখ টাকা নিয়েছেন।

মালয়েশিয়া বিএনপি নেতা শহীদুল্লাহ অভিযোগ করেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করিয়ে দেওয়ার কথা বলে তার (খালেদা) বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের দাবি মতো এক লাখ টাকা দিতে বাধ্য হয়েছিলেন তিনি। টাকা নেওয়ার পর শিমুল বিশ্বাস আর কোনো সহযোগিতা করেননি।

Related posts