September 19, 2018

শফিক চৌধুরীকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করতে হবে—বিশনাথে মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ

2.06.18মো. আবুল কাশেম, বিশ্বনাথ প্রতিনিধি :: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেছেন, আসন্ন নির্বাচনে নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে সিলেট-২ আসনে ‘শফিক চৌধুরী’কে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করতে হবে। আর সারা দেশে শফিক চৌধুরীর মতো আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীরা বিজয়ী হলে জাতির জনকের কন্যা বাংলার সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুনঃরায় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হবেন। এতে অব্যাহত থাকবে সর্বক্ষেত্রে সমভাবে বাংলাদেশের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড বাস্তবায়নের ধারা ও সর্বস্তরের মানুষও পাবেন নিজেদের প্রাপ্য অধিকার পাওয়ার নিশ্চয়তা। নৌকার বিজয়ে দেশের মানুষ নিরাপত্তার সাথে শান্তিতে বসবাস করতে পারেন বলেই বার বার দেশের সর্বস্তরের মানুষ আওয়ামী লীগকে নির্বাচিত করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আনেন।
তিনি আরোও বলেন, বছরের শুরুতে শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে নতুন বই তুলে দিয়ে, কৃষকদেরকে বিনামূল্যে সার-বীজ প্রদান করে, কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে গ্রাম পর্যায়ের জনসাধারণকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বাধীন সরকার সর্বস্তরের মানুষকে নিজেদের প্রাপ্য অধিকার প্রদান করে যাচ্ছেন। উন্নয়নের এধারা অব্যাহত রাখাতে সিলেট-২ আসনে নৌকার বিজয়, মানে শফিক চৌধুরী’র বিজয়, মানে শেখ হাসিনা’র বিজয় নিশ্চিত করতে তৃণমূল পর্যায় থেকে শুরু করে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যেতে হবে। তিনি বলেন, বাবুল আখতার ছিলেন দলের জন্য একজন নিষ্টাবান ত্যাগী নেতা।
তিনি শনিবার বিকেলে সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিল এবং সদ্য প্রয়াত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাবুল আখতারের ১ম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথাগুলো বলেন। সভায় বক্তারা বলেন, বাবুল আখতার ছিলেন মুজিব আদর্শের একজন খাঁটি কর্মীবান্ধন নেতা। যার শূন্যস্থান সমাজে কখনও পূরণ হওয়ার নয়। বাবুল আখতাররা বারে বারে আসেন না, তাই আমাদের সবাইকে তাঁর মতো দলের খাঁটিকর্মী হতে হবে।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী বলেই দেশ আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে রয়েছে দেশ। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যক্ররের মাধ্যমে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছে আওয়ামী লীগ। মহাকাশে ‘বঙ্গবন্ধু-১’ স্যাটেলাইট প্রেরণের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তিতে নতুন যোগের সূচনা করেছেন জাতির জনকের কন্যা।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খানের সভাপতিত্বে এবং সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির আলী চেয়ারম্যান, যুগ্ম সম্পাদক মকদ্দছ আলী ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আলতাব হোসেনের যৌথ পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহ ফরিদ আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ মোশাহিদ আলী, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা নাজনীন হোসেন, উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য এস এম নুনু মিয়া, বিশ্বনাথ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সিরাজুল হক, যুক্তরাজ্যের নিউহাম আওয়ামী লীগের সভাপতি মোবারক হোসেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলী আমজদ, ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান, উমরপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া, রামপাশা ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর।
বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ ফয়েজ আহমদ সেবুল, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন, অর্থ সম্পাদক নূরুল ইসলাম, সহ দপ্তর সম্পাদক নূরুল হক, কার্যনির্বাহী সদস্য শেখ মোঃ আজাদ, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত আলী, খাজাঞ্চী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শংকর ধর, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শীতল বৈদ্য। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন দৌলতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আরিফ উল্লাহ সিতাব ও সভা শেষে দোয়া পরিচালনা কনে সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শামসুদ্দোহ পিপিএম, পরিদর্শক (তদন্ত) দুলাল আকন্দ, ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের নাজলু চৌধুরী, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক হাজী সিতাব আলী, সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আবদুল হান্নান, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মানিক লাল দে, সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বৈদ্য, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য নিশি কান্ত পাল, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অজিত কুমার পাল, রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল আজিজ, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি বিশ্বনাথ জোনাল অফিসের ডিজিএম কমলেশ চন্দ বর্মন, এজিএমকম নাজমুল হাসান, উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি আলা উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক গৌছ আলী, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি পংকজ পুরকায়স্থ, সহ সভাপতি সুহেল আহমদ মুন্না’সহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার নেতৃবৃন্দ।
দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে উপস্থিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজী ইরন মিয়া, সমছু মিয়া, সেলিম আহমদ সেলিম, হাজী মোঃ আসাদুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম জুয়েল, আবদুল আজিজ সুমন, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আবদুল মতিন, দপ্তর সম্পাদক সাহিদুল ইসলাম সাহিদ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ফখর উদ্দিন মাস্টার, প্রচার সম্পাদক নিখিল পাল, বন ও পরিবেশ সম্পাদক রুনু কান্ত দে, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপিকা রুকিয়া বেগম, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রনজিত ধর রন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সাধন চন্দ্র দাশ, কার্যনির্বাহী সদস্য তাজ উদ্দিন আহমদ, শেখ নূর মিয়া, এমদাদুল হক, আনোয়ার আলী, আখতার হোসেন জুনেদ, মিজানুর রহমান, ফজর আলী মেম্বার, রফিক হাসান মেম্বার, এনামুল হক মেম্বার, নাজমুল আলম চৌধুরী অপু, নিজাম উদ্দিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে সুফি শামছুল ইসলাম, আরশ আলী, আবদুল মোমিন, আবদুর নূর, আবুল হোসেন, তফজ্জুল আলী, ইলিয়াস মিয়া, দিলোয়ার হোসেন রুপন, আওয়ামী লীগ নেতা তাহিদ মিয়া, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ছুরাব আলী, সহ সভাপতি সাহাব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আবদুল হান্নান বদরুল, যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি হাজী আমির আলী, সহ সভাপতি সুন্দর আলী, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, নির্বাহী সম্পাদক আজাদুর রহমান আজাদ, সাবেক কার্যকরী সভাপতি শংকর দাশ শংকু, যুবলীগ নেতা আবদুর রউফ, শাহনেওয়াজ চৌধুরী সেলিম, কামরুজ্জামান সেবুল, আঙ্গুর মিয়া, তোফায়েল আহমদ, জিয়াউর রহমান জিয়া, মনোহর হোসেন মুন্না, গিয়াস উদ্দিন, দবির মিয়া, অ্যাডভোকেট সায়েদ আহমদ, এমদাদ হোসেন নাঈম, আবুল কাশেম, আবদাল মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি কাউসার আহমদ, শিপন আলী, সেলিম মিয়া, মুজিবুর রহমান মঞ্জু, লিটন দে, যুগ্ম সম্পাদক শাহ বুরহান আহমদ রুবেল, শাহ সাইদুল ইসলাম সুজা, সাংগঠনিক সম্পাদক জুবায়ের আহমদ জয়, ছাত্রলীগ নেতা শামীম আহমদ, মিয়াদ আহমদ প্রমুখ’সহ দলের বিভিন্নস্তরের নেতৃবৃন্দ।

Related posts