September 22, 2018

লেবাননে বিএনপি আল-গাজিয়া-সাইদা শাখার বিজয় দিবস উদযাপন

Untitled-1

বাবু সাহা, লেবাননঃ লেবাননে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি  আল-গাজিয়া-সাইদা শাখার উদ্দ্যোগে জাতীয় “মহান বিজয় দিবস ” উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধা অনুষ্ঠিত হয়। ১৭ ডিসেম্বর রবিবার  সাইদায় আল-গাজিয়ার একটি অভিজাত হোটেল বুরুজ আল-আখদারে এ অনুষ্ঠানটি উদযাপন হয়।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির লেবানন এর  আল-গাজিয়া-সাইদা শাখা কমিটির সভাপতি রিপন মাহমুদ এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লেবানন  বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোঃ মফিজুল ইসলাম (বাবু)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লেবানন  বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ হাবিবুর রহমান (হাবিব)।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, লেবানন  বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির  উপদেষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মোঃ আব্দুল হালিম, প্রধান উপদেষ্টা মোঃ আমির হোসেন (কলিম), উপদেষ্টা সদস্য ও সাবেক সভাপতি মানিক মোল্লা, সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার, সহ-সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মজিবুর রহমান, সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম আইমান,  প্রচার সম্পাদক মোঃ ইকবাল হোসেন ও লেবানন যুবদল শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল করিম।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। পরে সবাই দাঁড়িয়ে শহীদদের স্মরণে  এক মিনিট নীরবতা পালন করেন।

আল-গাজিয়া-সাইদা শাখা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ হাবিব কাজীর সঞ্চালণায় উক্ত আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সাইদা আল-গাজিয়া শাখা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসাইন,  সহ-সভাপতি মোঃ আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ সিরাজুল ইসলাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মেহেদী হাসান, ও কোষাধ্যক্ষ মোঃ ইমরান হোসাইন।

বাংলাদেশ থেকে টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য, সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে লেবানন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মোঃ মফিজুল ইসলাম (বাবু) বলেন, ১৬ই ডিসেম্বর বাঙালি জাতির একটি ঐতিহাসিক বিজয়ের দিন। প্রতি বছর আমাদের এই দিনটি আসে বাঙালি জাতিকে বিজয়ের আনন্দে পুনর্জাগরণের আর স্বজন হারানোর বেদনার সংস্পর্শে। ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বরেই পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী পর্যুদস্ত হয় এবং আসে আমাদের মুক্তির স্বাদ। এ জন্যই প্রতি বছর এ দিনটিকে বিশেষ দিন হিসেবে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে LP শিল্পীগোষ্ঠীর পরিবেশনায় এক বিরাট মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধা উপভোগ করেন উপস্থিত দর্শকশ্রোতারা।

Related posts