December 14, 2018

লার্নিং পয়েন্ট : কারিগরী শিক্ষা ও ইংরেজি ভাষা শিক্ষার্থীদের ভরসাস্থল

received_261695577815733বিশ্বনাথ (সিলেট) প্রতিনিধি :: লার্নিং পয়েন্ট। গুণগত মানসম্পন্ন কারাগরী শিক্ষা ও ইংরেজি ভাষা শিক্ষার একটি প্রতিষ্ঠান। দেশের নামিদামি আর দশটি প্রতিষ্ঠানের মতোই লার্নিং পয়েন্টের রয়েছে আপন স্বকীয়তা, স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট। সুদীর্ঘ ১৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে সিলেটের বিশ্বনাথ ও ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজার এবং তৎপার্শ্ববর্তি এলাকায় কারিগরী শিক্ষায় অবদান রাখার পাশাপাশি ইংরেজি ভাষাজ্ঞান পিপাসুদের পিপাসা নিবারণে অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে।

এই প্রতিষ্ঠানের অনেক শিক্ষার্থী ইতোপূর্বে দেশে এবং বিদেশের মাটিতে বিভিন্ন গুরুত্বগূর্ণ পদে চাকুরী করার পাশাপাশি স্ব-স্ব কর্মক্ষেত্রে নিজেদের যোগ্যতার জানান দিয়ে চলেছেন। তাদের অনেকেই নিজের অবস্থান তৈরিতে লার্নিং পয়েন্টের অবদানের কথা স্বীকার করে প্রিয় প্রতিষ্ঠানটির উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেছেন এবং নতুন প্রজন্মকে লার্নিং পয়েন্ট মূখি হতে পরামর্শ দিয়েছেন।

সরেজমিনে লার্নিং পয়েন্ট বিশ্বনাথ শহরের আল-হেরা ক্যাম্পাসে ঘুরে দেখা গেছে-প্রতিষ্ঠানের নিয়মানুযায়ী প্রতিটি বিষয়ের ক্লাস নিচ্ছেন অভিজ্ঞ শিক্ষকেরা। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিও শতভাগ। নিদিষ্ট স্থানে বসে আছেন অভিভাবকেরা। প্রতিষ্ঠাতা প্রধান মো. মঈন উদ্দিনের সার্বক্ষনিক তদারকিতে চলছে পাঠদান।

কারিগরী শিক্ষা ও ইংরেজী ভাষা শিক্ষার রয়েছে আলাদা আলাদা ক্লাস রুম। সভা-সেমিনারের জন্য রয়েছে হলরুম। প্রতিষ্টান প্রধানের আলাদা রুম, শিক্ষকদের আলাদা রুমসহ রয়েছে রিসিপশন। সবমিলিয়ে লার্নিং পয়েন্ট যে বেশ প্রাণোবন্ত ও অসাধারণ একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সেটি বলা যায় অবলোকন থেকে।

লার্নিং পয়েন্টের শিক্ষার্থী শেখ মোনায়েম খান বলেছেন-আমার ক্যারিয়ার করেছে লার্নিং পয়েন্ট। অই প্রতিষ্টানে ইংরেজী ভাষা শিক্ষা অর্জন করায় একটি স্কুলে চাকুরী পেয়েছি। আন্তজার্তিক ভাষা হচ্ছে ইংরেজী। যে ভাষায় কথা বলা যায় বিশ্বের যে কোন দেশে। আর ভাষা না জানলে একদম বুবা। ইংরেজী ভাষা না জানলে ভাল কাজ পাওয়া খুবই কষ্টকর। অনেক লোক ইংরেজী না জানার কারণে প্রবাসে ভাল কাজ পাওয়া থেকে বঞ্চিত রয়েছেন। ভাষা জানা থাকলে তারা ভাল অবস্থান সৃষ্টি করতে পারতেন।

প্রবাসের অনেকের সাথে আলাপ করে জানাযায়, ইংরেজী ভাষা না জানার কারণে তারা কোন ভাল কাজ পাননি। এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যেতেও অসুবিধা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে লার্নিং পয়েন্টের প্রতিষ্টাতা প্রধান মো. মঈন উদ্দিন বলেন, লার্নিং পয়েন্ট এগিয়ে যাওয়ার পেছনে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত আছে, থাকবে। আমরা কাজ করে যাচ্ছি। দেশ এবং বিদেশে অনেক শিক্ষার্থী ভাল অবস্থানে আছেন যেনে আমরা আনন্দিত হই। তিনি বলেন, কর্মজীবি ও বেকার যুবকদের কথা চিন্তা করে চলতি মাসের ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধাকালীন (৭টায়) ইংরেজি ভাষা শিক্ষার কোর্স চালু করা হয়েছে।

Related posts