September 26, 2018

র‌্যাব-পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধ; নিহত ৩

576

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তোফায়েল আহমেদ মিলন (২৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার চক আলমপুর গ্রামে এই বন্দুকযুদ্ধ হয়।

র‌্যাবের দাবি, নিহত মিলন এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ঘটনায় আটটি মামলা রয়েছে।

তবে নিহত মিলনের পরিবারের দাবি, তিনি ঢাকায় রাজমিস্ত্রির কাজ করেন। দুই সপ্তাহ আগে ঢাকা থেকে র‌্যাব তাকে ধরে এনে চাঁপাইনবাবগঞ্জে হত্যা করেছে।

নিহত রাজমিস্ত্রি মিলন সদর উপজেলার রামচন্দ্রপুরের আব্দুস সালামের ছেলে।

যশোরে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুককযুদ্ধে’ অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি (৩০) নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে তিনটার দিকে সদর সদর উপজেলার যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কের রহমতপুর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধ হয়।

পুলিশের দাবি, নিহত যুবক ‘ডাকাত দলের সদস্য’। তবে তার নাম জানাতে পারেনি পুলিশ।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক আবুল খায়ের বলেন, মহাসড়কে ডাকাতির প্রস্তুতির গোপন খবরে পুলিশ গভীর রাতে রহমতপুর এলাকায় অভিযানে যায়।

এ সময় ডাকাত দল পুলিশের দিকে গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। ডাকাত দলের সদস্যরা পালিয়ে যাওয়ার পর ঘটনাস্থলে একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি বড় দা, গাছ কাটার করাত উদ্ধার করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’র পর মো. মুসলিম নামে এক যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক করা হয়েছে।

ওই ঘটনার পর মুসলিমের এক সহযোগী শুকুর আলী নামে আর এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার ভোর রাতে রায়পুর উপজেলার বামনি ইউনিয়নের সাইচা গ্রামের একটি সুপারি বাগানে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের দাবি, আটক মুসলিমের বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্র, ডাকাতি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডসহ বিভিন্ন অভিযোগে থানায় আটটি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে তিনটি মামলায় বিভিন্ন মেয়াদে তাকে সাজা প্রদান করেন আদালত। এছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র ও গুলি।

গুলিবিদ্ধ মুসলিমকে লক্ষ্মীপুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি রায়পুর পৌরসভার দেনায়েতপুর গ্রামের সরদার বাড়ির আব্দুল করিম সরদারের ছেলে।

চিকিৎসাধীন মুসলিম দাবি করেন, তাকে আটকের পর অস্ত্র ঠেকিয়ে বাম পায়ে গুলি করে পুলিশ।

রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লোকমান হোসেন জানান, ডাকাতির প্রস্তুতির খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। এসময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ডাকাতদল গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মুসলিমকে আটক করা হয়।

তিনি আরো জানান, মুসলিমের সহযোগী শুকুর আলীকে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধরা হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে তিন রাউন্ড গুলিসহ একটি এলজি, একটি চেনি ও একটি শাবল উদ্ধার করা হয়। তাদের পরে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

মুসলিমের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের আটটি এবং শুকুর আলীর বিরুদ্ধে দুটি মামলা রয়েছে বলেও জানান ওসি লোকমান হোসেন।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts