November 16, 2018

রুশ রাষ্ট্রদূত হত্যার ঘটনাঃ এরদোগানের জন্য কি শংকার? (ভিডিও)

বিশেষ প্রতিনিধি, ইস্তাম্বুল থেকে: তুরস্কে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আন্দ্রেই কারলভকে লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে এক বন্দুকধারী। হামলায় রুশ রাষ্ট্রদূত গুরুতর আহত হন । পরে তিনি হাসপাতালেই মারা যান।

সোমবার সন্ধ্যায় একটি আর্ট গ্যালারি পরিদর্শনের সময় এ হামলার ঘটনা ঘটে।
ঘটনার পর অকুস্থলের যেসব ছবি এবং সংবাদমাধ্যমে যে বর্ণনা আসছে তাতে মনে করা হচ্ছে, এই ঘটনা প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগানের জন্য বড় ধরনের অশনি সংকেত।
একাধিক ছবিতে দেখা যাচ্ছে, গুলির পর পাশে পড়ে থাকা কয়েকজনের দেহের পাশে দাঁড়িয়ে রীতি মত পোজ দিচ্ছে হামলাকারী ব্যক্তি।

প্রশ্ন হচ্ছে, পুলিশ-গোয়েন্দাসহ নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা তখন কোথায় ছিল? কয়েক দফা গুলি ছোড়ার পরও কেন পুলিশ বা গোয়েন্দারা বন্দুকধারীকে লক্ষ্য করে গুলি করেনি? এটা প্রথম গুলির উৎপত্তিস্থল নিশ্চিত হওয়ার পরপরই করার কথা।
যেই মুহুর্তে আলেপ্পোয় রাশিয়ান বাহিনীর বর্বরতার বিরুদ্ধে তুরস্কজুড়ে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ চলছে, তেমন একটি সময়ে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতের নিরাপত্তায় সাধারণের চেয়ে বেশি পুলিশ-গোয়েন্দা নিয়োজিত থাকার কথা। কিন্তু তারপরও তারা পাল্টা পদক্ষেপ নিতে এত দেরি করলো কেন?

এটা কি নিরাপত্তা বাহিনীর কোনো অংশে এরদোগানের কর্তৃত্বের ঘাটতির ইঙ্গিত দেয়? বাহিনীগুলোর কিছু বিদ্রোহী মনোভাবের সদস্যকে কেউ ব্যবহার করে হত্যার সুযোগ করে দিয়েছে রাশিয়ান রাষ্ট্রদূতকে? এসব প্রশ্ন এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে অনেকের মনে। তবে সঠিক উত্তর পাওয়ার জন্য আরো অপেক্ষা করতে হবে। যদি এসব এসব প্রশ্নের উত্তর ‘হ্যাঁ’ হয়, তাহলে বাহিনীগুলোর ভেতর থেকে নতুন করে ষড়যন্ত্রের শিকার হতে পারেন এরদোগান।

ভিডিওঃ তুরস্কে রুশ রাষ্ট্রদূতকে যেভাবে গুলি করে হত্যা করা হলো 

Related posts