November 18, 2018

৩ সন্তানের জননীর হাত-পা কেটে হত্যার চেষ্টা!

রহিম রেজা, রাজাপুর (ঝালকাঠি) থেকে: ঝালকাঠির রাজাপুরের পুটিয়াখালি গ্রামে বতসভিটা থেকে বিতারিত করার জন্য হত্যার উদ্দেশ্যে শাহনাজ বেগম (২৬) নামে ৩ সন্তানের জননী এক গৃহবধূর হাত-পায়ে ইট-লাঠি দিয়ে পিটিয়ে এবং দাও দিয়ে কুপিয়ে কেটে দিয়েছে শ্বশুর মান্নান তালুকদার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। গতকাল রোববার রাতে পুটিয়াখালি গ্রামে ওই গৃহবধূর মায়ের সূত্রে দলিলমূলে পাওয়া বতসভিটায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর বড় ছেলে শিশু শাকিল (১০) কেও পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কান্নাজড়িত ভাঙা ভাঙা কন্ঠে শাহনাজ বেগম সোমাবার বিকেলে জানান, তার মা হালিমা বেগমের পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া ৩ কাঠা জমি শাহনাজের নামে দলিলমূলে তার লিখে দেন। সেই জমিতে স্বামী-সন্তানদের নিয়ে বসবাস করে আসছে। কিন্তু জমি লোভী শ্বশুর মান্নান তালুকদার তাদের ওই জমির বতসভিটা থেকে বিতারিত করার জন্য এর আগেও তার ওপর দুই দফায় হামলা চালিয়ে জখম করে। বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। এসব ঘটনায় আদালতে মামলা চলামান রয়েছে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘটনার দিন রোববার রাতে রিক্সা চালক স্বামী শাহ জামাল গালুয়া বাজারে থাকার সুযোগে শ্বশুর মান্নান তালুকদার, ফিরোজ, নাজমুল, সালেহা ও মমতাজসহ ও তার লোকজন ওই বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় গৃহবধূ ৩ শিশু সন্তানকে নিয়ে ভয়ে বাঁচার জন্য ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয় কিন্তু দেশীয় অস্ত্রধারীরা ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে শাহনাজ বেগমকে আটকে ধরে দেশীয় দাড়ালো দাও দিয়ে হাত ও পা কেটে দেয় এবং ইট ও লাঠি দিয়ে বেধরক মারধর করে। এতে হাত ও পায়ের হাড় ভেঙে যায়।

এ সময় মাকে বাঁচানোর জন্য শিশু শাকিল এগিয়ে এলেও ওই অমানুষদের হাত থেকে সেও রেহাই পায়নি। তাদের ডাক-চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে তাকে উদ্ধার করে রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করান। বর্তমানে শ্বশুর ও তার লোকজন ওই গৃহবধূ ও তার স্বামীকে মোবাইলে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। রাজাপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আবুল খায়ের রাসেল জানান, দাড়ালো অস্ত্রের আঘাতে ওই গৃহবধূর হাত ও পায়ের হাড় ভেঙে গেছে এবং মারাত্মক জখম হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে বরিশাল রেফার্ড করা হয়েছে। এ বিষয়ে ওই গৃহবধূর স্বামী শাহজামাল জানান, তার বাবা জমি থেকে বিতারিত করার জন্য দীর্ঘদিন ধরেই তার স্ত্রীকে মারধর করে আসছে, প্রতিবাদ করলে তাকেও মারধর করে।

এ ঘটনায় রাতেই রাজাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। তবে রাজাপুর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গিয়াস জানান, এ রকম কোন ঘটনা জানা নেই, কেহ অভিযোগ নিয়ে আসেনি।

অভিযুক্ত শ্বশুর মান্নান তালুকদারের ফোনে কল দিলে তার স্ত্রী মমতাজ দাবি করেন, তার স্বামী মান্নান তালুকদার মারধর করেনি, অন্য লোকজন মেরেছে। তাদের তিনি চেনেন না।
মোঃ আঃ রহিম রেজা
রাজাপুর, ঝালকাঠি।

Related posts