November 21, 2018

রাজাপুরে সেটেলমেন্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দালালের মাধ্যমের ২ লাখ টাকা ঘুষ দাবির অভিযোগ

আঃ রহিম রেজা, রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি: ঝালকাঠির রাজাপুরের সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা মশিউর রহমানের বিরুদ্ধে জমি রেকর্ডে দালালের মাধ্যমে ২ লাখ টাকা ঘুষ দাবির অভিযোগ এনে গতকাল শনিবার সকালে রাজাপুর সাংবাদিক ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলার পুটিয়াখালি গ্রামের মৃত কাদের মুন্সির ছেলে মোঃ শাহজাহান মুন্সি। তিনি সংবাদ সম্মেলনে লিখিত অভিযোগে জানান, ৪০ নং পুটিয়াখালি মৌজার ২১২৪/১, ৫৫৩,২১২৪,৫৫৭,২১২৬,২২৭১,১৮২৯,১৯১১,১৯১২ এসএ খতিয়ানসহ আরও ৪/৫টি খতিয়ানে মোট ১২.৬০ একর সম্পতি রয়েছে। উক্ত জমির মাঠ জরিপ, একস্টেশন ও ৩০ ধারায় যথাযথভাবে বিএস রেকর্ড হলেও বর্তমানে ৩১ ধারায় সেটেলমেন্ট অফিসের দালাল পুটিয়াখালি গ্রামের মৃত আলতাফ তালুকদারের ছেলে মিজান তালুকদারের যোগসাজসে সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা মশিউর রহমান স্থানীয় কিছু অসাধু ব্যক্তিদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের ঘুষ গ্রহন করে তাদের রেকর্ড দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে শাহজাহান মুন্সি লিখিত অভিযোগে আরও জানান, দালাল মিজান তালুকদার শাহজাহানকে বলেন যে, তার মাধ্যমে সেটেলমেন্ট অফিসার মশিউরকে ২ লাখ টাকা দিলে শাহজাহান মুন্সির সকল জমির কাগজপত্র ঠিক করে রেকর্ড দিবে। ঘুষের টাকা না দিয়ে শাহজাহানের জমি অন্য পক্ষের লোকজনকে দিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরে শাহজাহান সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা মশিউর রহমানের কাছে গেলে তিনি দালাল মিজানের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। ইতোপূর্বেও শাহজাহানের জমি রেকর্ডে নানা সমস্যা ও অযুহাতে মশিউর রহমানসহ সেটেলমেন্টের বিভিন্ন কর্মকর্তারা ৩ লক্ষাধিক টাকা ঘুষ গ্রহন করেছেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেছেন শাহজাহান মুন্সি। তিনি এ থেকে পরিত্রানের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। অভিযোগ সম্পর্কে মিজান তালুকদারের মতামত পাওয়া যায়নি। অভিযোগের ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা মশিউর রহমানের ব্যবহৃত মোবাইলে একাধিক বার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

Related posts