September 24, 2018

রাজাপুরে শিক্ষক নিয়োগে অর্ধকোটি টাকা ঘুষ বানিজ্য

মোঃ আঃ রহিম রেজা,ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ  ঝালকাঠির রাজাপুরের কানুদাসকাঠি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুজ্জামান ও প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ১২ শিক্ষক ও ৬ চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারীসহ মোট ১৮ জন প্রার্থীর কাছ থেকে ৫০ লক্ষাধিক টাকা ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘুষদিয়েও অদ্যবদি কোন প্রার্থীই চুড়ান্ত নিয়োগ এবং এসব প্রার্থীরা বর্তমানে নানাভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া জানা গেছে। এছাড়াও ওই প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কর্মকর্তাদের এনে অনুষ্ঠান করতে প্রত্যেক প্রার্থীর কাছ থেকে টাকা চাঁদা হিসাবে নিয়েও বানিজ্য করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

উপজেলার মধ্য কানুদাসকাঠি গ্রামের আবদুল বাতেনের স্ত্রী ওই স্কুলের শিক্ষক প্রার্থী শিউলী আক্তার অভিযোগ করে বলেন, গত ২০১৩ ইং তাকে ওই প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ দিতে ওই বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নুরুজ্জামান ও প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান দুইলক্ষ টাকা ঘুষসহ প্রয়োজনীয় সনদপত্রসহ অন্যান্য কাগজপত্রের কপি নিয়ে নেয়। বিনা বেতনে দুই বছর প্রতিষ্ঠানে কাজ করিয়ে তার কাছে আরো দেড় লাখ টাকা দাবি করেন। তিনি টাকা দিতে রাজি না হলে প্রতিষ্ঠানের নামে করা একটি প্যাট কাগজের ফর্মে প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান শিউলী আক্তারের বাবার নাম জালাল উদ্দিন তালুকদারের পরিবর্তে আলতাফ হোসেন লিখে ঝালকাঠি জেলার সংশ্লিষ্ট অফিসে জমা দেয় এবং তার সনদের বাবার নামের সাথে পুরনকৃত ফর্মের নামের মিল না থাকায় তাকে চাকুরি দেয়া যাবে না বলে জানিয়ে দেয়া হয়।

নাম প্রকাশে না করার শর্তে একাধিক প্রার্থী অভিযোগ করেন, এরকম আরো ১২ শিক্ষক ও ৬ জন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারি প্রার্থীর কাছ থেকে বিভিন্ন হারে দুই লক্ষ থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা এবং চতুর্থ শ্রেনীর দুইজন প্রার্থীর কাছ থেকে দেড় লক্ষ টাকা করে ঘুষ নিয়েছে। সরেজমিনে গেলে স্থানীয়রা জানান, প্রতিষ্ঠানটি প্রত্যন্ত গ্রমা লে হওয়ায় কোন তদারকি বা কর্তাব্যাক্তিদের নজরদাড়ি না থাকায় সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক এ স্কুলের বিভিন্ন পদে নিয়োগে এভাবে ঘুষ বানিজ্য করছে।

কানুদাসকাঠি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামরুজ্জামান ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ নুরুজ্জামান বাবলু সব অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, দীর্ঘদিন সরকারিভাবে বেতন না হওয়ায় প্রার্থী শিউলী আক্তার তার দেয়া ২০ হাজার টাকা ফেরৎ নিয়ে লিখিত দিয়ে চাকুরি ছেড়ে চলে গেছে। বাবার নাম পরিবর্তনের অভিযোগের বিষয়টিও সত্য নয় দাবি করেন তারা।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts