November 13, 2018

রাজাপুরে বসতবাড়ির জমি দখলের অভিযোগ!

মোঃ আঃ রহিম রেজা,রাজাপুর প্রতিনিধিঃ  ঝালকাঠির রজাপুরের পালট গ্রামের মৃতু রমিজ উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে দরিদ্র শাহ আলম, চাচাতো ভাই দরিদ্র আঃ হালিমের বসতবাড়ির জমি ওই এলাকার মৃতু সফিজউদ্দিন খলিফার ছেলে প্রতিপক্ষ ফিরোজ, রহিম, ইউনুচ খলিফা ও তাদের আত্মীয় ঝালকাঠি সদর ইউএনও’র প্রধান সহকারী আহসান হাবিব ওরফে আইউব আলী খলিফা দখল করেছে বলে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল সোমবার সকালে দরিদ্র শাহ আলম  লিখিত অভিযোগ করেন, প্রায় গত ২৫ বছর আগে শাহ আলমের প্যারালাইজ অসুখে আক্রান্ত হলে প্রতিপক্ষের আহসান হাবিব ওরফে আইউব আলী খলিফার কাছ থেকে দুই হাজার টাকা ধার আনেন।

মাস তিনেক পরে ধারের টাকা আইউব আলী খলিফা ফেরত চাইলে টাকা ফেরত না দিতে পারায় একটি সাদা ষ্ট্যাম্পে শাহ আলমের স্বাক্ষর নিয়ে যায় আইউব আলী খলিফা। এর প্রায় এক বছর পরে শাহআলম ও হালিমকে না জানিয়ে তাদের বসত ভিটা ৭১ নং পালট মৌজার ৫৫১ নং এসএ খতিয়ানের ২৩৭৫ নং দাগের  ৩৩ শতাংশ জমির মধ্যো থেকে ১০শতাংশ জমি জালিয়াতি করে দলিল করে লিখে নেয় এবং তার সাথে ৩৩ শতাংশ জমির সবটুকুই প্রতি পক্ষের লোকজন পেশি শক্তির বলে দখল করে নেয়। এর ১৫ বছর পরে স্থানিয় শালীশির মাধ্যমে দলিলের জমি বাদে বাকি ২৩শতাংশ জমি শাহআলম ও হালিম ফেরত পেয়ে সেখানে গাছ রোপন করেন তারা। গত ইং ২০১৫ সালে আবার প্রতিপক্ষের লোকজন ওই জমি দখল করতে গেলে শাহআলম, হালিম ও তাদের লোকজন বাধা দিলে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষরা রাজাপুর থানায় পর পর দুটি মামলা দেয়।

দতন্ত সাপেক্ষে মিথ্যা প্রমানিত হওয়ায় মামলা থেকে অব্যাহতি পায় তারা। পরে ঝালকাঠি আদালতে প্রতিপক্ষ ঝালকাঠি সদর উপজেলার ইউএনও’র প্রধান সহকারী  আহসান হাবিব ওরফে আইউব আলী খলিফার নেতৃত্বে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে। এছাড়াও প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে এরকম এলাকার আরো ১০টি পরিবারের হয়রানির অভিযোগ রয়েছে। মিথ্যা মামলার হাত থেকে অব্যাহতি ও প্রভাবশালী প্রতিপক্ষের হাত থেকে বাচতে অসহায় দরিদ্র শাহআলম ও হালিমের পরিবার সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আসু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। অভিযুক্তদের মতামত পাওয়া যায়নি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts