September 23, 2018

রবিবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্লেয়ার ড্র্যাফট

1460208237 (1)
চলতি মাসের ২২ তারিখ থেকেই শুরু হতে যাচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসর। এজন্য রবিবার শুরু হচ্ছে প্লেয়ার বাই চয়েজ।  ঢাকার লা মেরিডিয়ান হোটেলে সকাল ১১টা থেকেই শুরু হবে এই আয়োজন।
শনিবার বিসিবি কার্যালয়ে সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান লিগের আয়োজক ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিশের (সিসিডিএম) প্রধান গাজী গোলাম মর্তুজা প্লেয়ার্স ড্রাফটের কার্যক্রম পরিচালনা করবেন মাহবুব আনাম।
প্লেয়ার্স ড্র্যাফটে লটারির মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রেড থেকে পছন্দ অনুযায়ী ক্রিকেটারদের বেছে নিতে পারবে ক্লাবগুলো। ১২টি ক্লাবের জন্য মোট ২০৭ জন ক্রিকেটারকে রাখা হয়েছে এ তালিকায়। এদের মধ্য থেকে প্রতিটি ক্লাবকে বাধ্যতামূলক কমপক্ষে ১০ জন করে ক্রিকেটারকে দলে নিতে হবে।
মাহবুব আনাম বলেন, প্রথম ১৩ রাউন্ডে ‘এ’ থেকে ‘ই’ পর্যন্ত ডাকতে পারবেন ক্লাবগুলো। এরপর আইকন ও ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরি রাউন্ডটি অনুষ্ঠিত হবে।  লোয়াড়দের ডাকার সময় এক টেবিলে ৬ জনের বেশি কোনও ক্লাব প্রতিনিধি বসতে পারবেন না। ক্লাবগুলোর কলিংটাও লটারির মাধ্যমেই হবে। আমরা আগেই লটারিটা করে রাখবো। তাতে করে ক্লাবগুলো আগে থেকেই জানতে পারবে কখন তার ডাক আসবে। যার ফলে তারা তাদের সম্ভাব্য দলটার একটা পরিকল্পনা করে নিতে পারবে। কমপক্ষে দশ জন খেলোয়াড় তাদেরকে এই ড্রাফট থেকে নিতে হবে।’
গতবছরের লিগে খেলা ২ জন ক্রিকেটারকে এবার দলে রাখতে পারবে ক্লাবগুলো। সেক্ষেত্রে সেই সকল খেলোয়াড়ের নাম প্লেয়ার্স ড্রাফটে তোলা হবে না। তবে এই খেলোয়াড়দ্বয় অবশ্যই আইকন ও ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরি ব্যতীত হতে হবে। তিন ভাগে খেলোয়াড়দের পেমেন্ট পরিশোধ করবে ক্লাবগুলো। টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার আগে ৩০ ভাগ, মাঝখানে ৩০ ভাগ এবং টুর্নামেন্টে শেষ হওয়ার ৬ সপ্তাহের মধ্যে বাকি ৪০ ভাগ পরিশোধ করতে হবে।
এবারও প্রতি দল মাত্র ১জন বিদেশি ক্রিকেটার খেলতে পারবে। তবে রেজিস্ট্রেশন করানো যাবে ১০জন বিদেশি ক্রিকেটার।
তিনি আরও বলেন, ‘যেসব খেলোয়াড় অবিক্রিত থাকবে তারা ফ্রি খেলোয়াড় হিসেবে গণ্য হবে। ক্লাবগুলোর সঙ্গে পরবর্তীতে আলাপ-আলোচনা করে তাদেরকে দলভূক্ত করতে পারবে। সেক্ষেত্রে তাদের নির্ধারিত যে প্রাইজ আছে সর্বোচ্চ ওই প্রাইজেই মধেই দলভূক্ত করতে হবে।’

 

Related posts