September 23, 2018

যুবলীগ হলো আওয়ামী লীগের অন্যতম শক্তিশালী সংগঠন : ওমর ফারুক চৌধুরী

DSCN0129এ কে আজাদ, চাঁদপুর : আগামী ১লা এপ্রিল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাঁদপুরে জনসভা সফল করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭মার্চ) বিকেলে চাঁদপুর ক্লাব মাঠে অনুষ্ঠিত প্রতিনিথি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান মো. ওমর ফারুক চৌধুরী। প্রধান বক্তার কক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ। জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান খান কালু ভুইয়ার সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক সালাউদ্দিন মো. বাবর, আবু পাটওয়ারী ও মাহফুজুর রহমান টুটুলের যৌথ পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও চাঁদপুর সদর-হাইমচর ৩ আসনের এমপি ডা. দীপু মনি এমপি, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রান ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, যুবলীগের পেসিডিয়াম সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী, সদস্য ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় ট্রাইবুনাল আহ্বায়ক আতাউর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক নাসরিন জাহান শেফালী, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আজহার উদ্দিন, ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সভাপতি মাইনুল ইসলাম খান নিখিল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী স¤্রাট, কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা জাকিয়া সুলতানা শেফালী, সহ-সম্পাদক হাবিবুর রহমান পাবন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মো. ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১লা এপ্রিল চাঁদপুরে আসছেন। আমাদের মনে রাখতে হবে তিনি শুধুমাত্র আমাদের দলের সভানেত্রীই নন, তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্যা এবং গণপ্রজাতন্ত্রি বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী। জননেন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভাকে সফল করাতে যুবলীগকে ভূমিকা রাখতে হবে। কারণ যুবলীগ হলো আওয়ামী লীগের অন্যতম শক্তিশালী সংগঠন। এদেশের উল্লেখযোগ্য আন্দলন এবং অর্জনের পেছনে আওয়ামী লীগের অবদান রয়েছে। বর্তমান সরকার জননেত্রী শেখ হাসিনার আমলে বাংলাদেশের মানচিত্র পরিবর্তন হয়েছে। প্রযুক্তি এখন হাতের মুঠোয়। আর তা সম্ভব হয়েছে জননেত্রীর কারনে। বাংলাদেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ৭ম স্থানে রয়েছে। জঙ্গি নাশকতা সব রুখে দিয়েছে এই সরকার। তিনি আরো বলেন, এক তারিখের জনসভায় যুবলীগের নেতাকর্মীরা সবুজ ক্যাপ ও সম্ভব হলে সবুজ গেঞ্জি পরে যাবেন। আর সবার হাতে থাকবে যুবলীগের পতাকা। যাতে করে জননেত্রী শেখ হাসিনা যেদিকে চোখ রাখেন শুধু যুবলীগ আর যুবলীগ দেখতে পান। তৃণমুল নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা জনসভায় আপনারা শুধুমাত্র শেখ হাসিনা, যুবলীগ ও নৌকা বলেই শ্লোগান দিবেন। এছাড়া আর কোনো শ্লোগান দিবেন না। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যুবলীগের সকল নেতোকর্মী ঐক্যদ্ধ রয়েছে এবং থাকবে। আমাদের রূদয়কে বড় করতে হবে। কে কোন সংগঠন কোন পদ, তা হিসাব করার দরকার নেই। যে যেমনই হোক তাকে আমাদের সম্মান করতে হবে। আর যুবলীগ ঐক্যবদ্ধ হয়ে আগামী নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকার বিজয়ের লক্ষ্যে কাজ করবে।এ সময় যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি এবং চট্টগ্রাম বিভাগীয় সকল জেলা থেকে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

Related posts