September 19, 2018

যুক্তরাষ্ট্র ডাক বিভাগের ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মারক সিলমোহর’ উন্মোচন

663
হাকিকুল ইসলাম খোকন,বিশেষ সংবাদদাতাঃ   নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সামনে শহীদ মিনার স্থাপন করে ‘অমর একুশ’ উদযাপনের পঁচিশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্র ডাক বিভাগ ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মারক সিলমোহর’ উন্মোচন করলো।গত ২২ ফেব্রুয়ারির, সোমবার সকাল ১০টা থেকে নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটস পোস্ট অফিসে (৭৮-০২, ৩৭ এভিনিউ, জ্যাকসন হাইটস, নিউইয়র্ক ১১৩৭২) যারা চিঠি মেইল করছেন তাদের খামে এই ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মারক সিলমোহর’ দেয়া হচ্ছে। এটি মার্চের ২২ তারিখ পর্যন্ত চালু থাকবে।

স্মারক সিলমোহর উন্মোচন করেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ শামীম আহসান। বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী, সাংস্কৃতিক মন্ত্রী, ডাক ও তার মন্ত্রীসহ ১১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির কাছে প্রেরিত চিঠির খামে এই সিলমোহর লাগানোর মধ্য দিয়ে ভাষা দিবসের ইতিহাসে ঐতিহাসিক এ অধ্যায়ের সংযোজন ঘটানো হলো। এরপর অনেক প্রবাসী লাইনে দাঁড়িয়ে ওই সিলমোহর ব্যবহার করেন। এ সময় কনসাল জেনারেল বলেন, ‘মায়ের ভাষার জন্যে বাঙালির রক্তদানের অবিস্মরণীয় ঘটনাটি সারাবিশ্বের ভাষা সুরক্ষার প্রতিকে পরিণত করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের পোস্টাল ডিপার্টমেন্ট কর্তৃক স্মারক সিলমোহর প্রবর্তনের মধ্য দিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস আরো মহিমান্বিত হলো।’

উন্মোচনের অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কস্থ মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের প্রধান বিশ্বজিৎ সাহা বলেন, ‘দীর্ঘ ৭ মাসের চেষ্টার ফসল হিসেবে একুশে ফেব্রুয়ারির এ স্বীকৃতি পেলাম।’ উল্লেখ্য, মুক্তধারা ফাউন্ডেশন এবং বাঙালির চেতনাম  যৌথভাবে গত ২৫ বছর ধরে জাতিসংঘের সামনে শহীদ মিনার স্থাপন (অস্থায়ী) করে প্রবাসীদের শ্রদ্ধাঞ্জলির আয়োজন করে আসছে। এবারের একুশে’তে সেই কর্মসূচিতে ভিন্নমাত্রার সংযোজন ঘটেছে ওই একইস্থানে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ভাস্কর্য’ স্থাপন করে। এটি ১ ফেব্রুয়ারি স্থাপন করা হয়েছে একমাসের জন্যে।
664
যুক্তরাষ্ট্র ডাকবিভাগের ওই সিলমোহরে শহীদ মিনার স্থান পেয়েছে এবং পাশে লেখা রয়েছে ‘সেলিব্রেটিং টুয়েন্টিফাইভ ইয়ার্স অব একুশে ফেব্রুয়ারি, এসটিএ’। নিচের ৩ লাইনে ‘ডিবিবিএল ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাঙ্গুয়েজ ডে’। তারও নিচের লাইনে রয়েছে  ‘ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৬’। ডিবিবিএল বলতে ‘ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড’-কে বুঝানো হয়েছে অর্থাৎ মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের এই কার্যক্রমের অন্যতম স্পন্সর হচ্ছে ঢাকাস্থ এই ব্যাংক।

এদিকে, আগামী ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি জ্যাকসন হাইটসে পাবলিক স্কুল- ৬৯ এর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে একুশের গ্রন্থমেলা। প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেবেন বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাঙালীর চেতনা মে র চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাদশা, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামি লীগের উপদেষ্টা  সাংবাদিক হাকিকুল ইসলাম খোকন,আওয়ামীলীগনেতা সাহাদত হোসেন,আবদুল হামিদ, লেখক নিনি ওয়াহেদ, রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, সেমতি ওয়োহদ,আবু তাহের,আরিফ, তৈয়বুর রহমানসহ আরোও অনেকে।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts