November 19, 2018

যিশুর ভুতুড়ে চোখ, গির্জায় হুলুস্থূল!

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ আধিভৌতিক বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা জগতে বরাবরই জনপ্রিয়। এর উদাহরণ হিসেবে প্রায় প্রতিদিনই বিশ্বের নানা প্রান্তে ভূত, ভুতুড়ে বাড়ি ইত্যাদির ‘সন্ধান’ মেলে।

কিন্তু যিশুখ্রিস্টের মূর্তি কোনোদিন চোখ মেলে তাকিয়েছে এবং ফের ফিরে গিয়েছে অর্ধনিমীলিত অবস্থায়- এমনটা কেউ কখনো শোনেনি বা দেখেনি। কিন্তু মেক্সিকোর একটি গির্জা সাক্ষী থেকেছে এমনই বিস্ময়ের! এই খবরটি প্রকাশ করেছে বিশ্বের তাবৎ সংবাদমাধ্যমও!

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম দি ইনডিপেনডেন্টের খবরে জানা যায়, গত জুন মাসে মেক্সিকোর কোয়াউইলা দে সারাইয়োসা এলাকায় চ্যাপেল অব সালটিলো নামের একটি গির্জায় ঘটনাটি ঘটে। এক ব্যক্তি গির্জার ভেতরে ভিডিও করছিলেন। সেই ভিডিও ফুটেজেই ধরা দিয়েছে যিশুর চোখ মেলে তাকানো।

আর সম্প্রতি সেই ভিডিও আপলোড হতেই গির্জার মতোই হুলুস্থূল পড়ে গিয়েছে পৃথিবীতে। যাঁরা বিশ্বাসী, তাঁরা মনে করছেন, নিশ্চয়ই কোনো বিপদের আগাম সংকেত দিতেই চোখ মেলে তাকিয়েছেন যিশু। মানবসভ্যতার বিপদে তিনি স্থির থাকতে পারেননি। অন্যদিকে, অবিশ্বাসীদের বক্তব্য, ভিডিওটা পুরোপুরিই ভুয়া।

তবে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা নানাবিধ পরীক্ষার পর জানিয়েছেন, ভিডিওটি একেবারে খাঁটি। কোনোভাবে বিকৃত করা হয়নি। আর অন্তত ২০ জন আধিভৌতিক বিশেষজ্ঞ (প্যারানরমাল এক্সপার্ট) মিলে এক সপ্তাহ ধরে ভিডিওটি দেখে এই সিদ্ধান্তে এসেছেন যে, যিশুখ্রিস্ট সত্যিই চোখ খুলেছেন। মেক্সিকোর আধিভৌতিক বিশেষজ্ঞ ইভান এসামিলা দি ইনডিপেনডেন্টকে জানিয়েছেন, ‘বিষয়টি সত্যিই রহস্যজনক। আমি ভৌতিক বিষয়াদি নিয়ে কাজ করি, কিন্তু এই ঘটনা আমাকেও বিমূঢ় করেছে।’

এদিকে ডেইলি মেইলে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, রোমান ক্যাথলিক চার্চ স্যালটিলো এই ভিডিও দেখতে চায়নি। সেখানকার পাদ্রী জানিয়েছেন, এটি অ্যানিমেশন ছাড়া আর কিছুই নয়। আর খ্রিস্টধর্মে এমন আধিভৌতিক বিষয়ের স্থান নেই।

Related posts