December 14, 2018

মুসলিমরা মিয়ানমারের স্বীকৃত জাতিগোষ্ঠী নয়–অং সান সুচি

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্কঃ  অং সান সুচিতিনি নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী এবং নিজ দেশ মিয়ানমারের জন্য ১৫ বছর গৃহবন্দী থাকায় পশ্চিমাদের নিকট ন্যায়পরায়ণতার বিশুদ্ধ বাতিঘর বলে সমাদৃত।

কিন্তু মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্হী নেত্রী অং সান সুচির আরো একটি দিক আছে যা তার দেবীতুল্য ইমেজের সম্পূর্ণ বিপরীত।

সুচি তার চরিত্রের অপর দিকটি উন্মোচন করে এক বিবৃতিতে তার দেশের অমানুষিক নির্যাতনের শিকার সংখ্যালঘু মুসলিমদের জন্য ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি ব্যবহার না করতে দেশটিতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে পরামর্শ দিয়েছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার নাগরিক হিসেবে স্বীকার করে না।তাই সরকার তাদের ওই নামে ডাকবে না। তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের রোহিঙ্গা বলব না। কারণ, তারা মিয়ানমারের স্বীকৃত ১৩৫টি জাতিগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত নয়’।

৭০ বছর বয়সী সুচি তার দেশে রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো অমানুষিক নির্যাতনের বিরুদ্ধে কখনো একটি শব্দও উচ্চারণ করেননি। সুচির অন্ধ সমর্থকও একথা স্বীকার করে যে রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো বৌদ্ধদের বর্বর নির্যাতনের ব্যাপারে সুচির আচরণ সন্দেহজনক।

দ্যা গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন ডেরি/৯ মে ২০১৬

Related posts