November 17, 2018

মাসুদ আজহারকেও আটক করলো পাকিস্তানঃ জের পাঠানকোট হামলা!

ভারতের পাঞ্জাবের পাঠানকোট বিমানঘাঁটিতে হামলার ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে সন্দেহভাজন জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারকেও আটক করেছে পাকিস্তানের পুলিশ।

ইসলামাবাদের একটি এলাকায় অভিযান চালিয়ে সোমবার (১১ জানুয়ারি) তাকে আটক করা হয়। তবে, এ কথা জানানো হয় বুধবার (১৩ জানুয়ারি)।

মাসুদ আজহারকে আটক করার খবর জানানোর আগে বলা হয়, হামলার সন্দেহভাজন জইশ-ই-মোহাম্মদের তিন সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এদের সবাইকেই ‘নিরাপত্তা হেফাজতে’ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান পুলিশের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র।

মাসুদ আজহার ছাড়া আটক বাকি তিনজনের মধ্যে দু’জনের নাম জানানো হয়েছে। এ দু’জন হলেন- মাসুদ আজহারের ভাই আব্দুর রউফ আসগর ও ‍তার শ্যালক আশফাক আহমেদ। বাকি একজনের পরিচয় জানানো হয়নি।

পুলিশের ওই নির্ভরযোগ্য সূত্রটি জানায়, অভিযান চালিয়ে জইশ-ই-মোহাম্মদের কার্যালয় সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। সন্দেহভাজন অন্যদেরও আটক করতে অভিযানে আছে পুলিশ।

২ জানুয়ারি ভোরে পাঠানকোট বিমানঘাঁটিতে হামলা চালায় সশস্ত্র জঙ্গিরা। এ ঘটনায় সাত ভারতীয় সেনা নিহত হন।

ভারতের অভিযোগ, জইশ-ই-মোহাম্মদের কর্মীরাই এ হামলা চালিয়েছে। হামলার চার সন্দেহভাজন পৃষ্ঠপোষকের নামও পাকিস্তানকে জানায় নয়াদিল্লি। এদের মধ্যে আব্দুর রউফ আসগর ও আশফাক আহমেদ ছাড়াও আছে হাজী আব্দুল শাকুর ও কাশিম জান নামে আরও দু’জনের নাম।

এদিকে, এ হামলা তদন্তে ভারতকে সহযোগিতার জন্য একটি প্রতিনিধিদল পাঠানোর বিবেচনার কথা জান‍াচ্ছে পাকিস্তান। তারা বলছে, পাঠানকোট হামলা ভারতের সঙ্গে তাদের বিদ্যমান শান্তিপূর্ণ পদক্ষেপগুলো ব্যাহত করার অপচেষ্টা। ভারতও যেকোনো পদক্ষেপে পাকিস্তানের সঙ্গে থাকতে আগ্রহের কথা জানাচ্ছে।

পাঠানকোট বিমানঘাঁটিতে হামলার ঘটনার পর পাকিস্তানের পদক্ষেপগুলোকে ‘অভূতপূর্ব’ বলে উল্লেখ করছে দেশটির সংবাদমাধ্যম। যদিও ২০০১ সালে ভারতের সংসদে হামলায় প্রধান সন্দেহভাজন হিসেবে এই মাসুদ আজহারকে সমর্পণের আহ্বান জানিয়ে ইসলামাবাদের কাছে প্রত্যাখ্যাত হয় নয়াদিল্লি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/মেহেদি/ডেরি

Related posts