September 24, 2018

মার্কিন মুসলিম মহিলার ‘পতাকা হিজাব’ নিয়ে শোরগোল

মার্কিন মুসলিম মহিলার ‘পতাকা হিজাব

প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম-বিদ্বেষ যখন আবার বাড়ছে, তখন এক মুসলিম মহিলা মার্কিন পতাকাকে হিজাব হিসেবে ব্যবহার করে টেলিভিশন অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছেন। সাবা আহমেদ ফক্স টেলিভিশনে মেগান কেলির নিউজ প্রোগ্রামে হাজির হন তার এই অভিনব হিজাব পরে। তার এই ‘পতাকা হিজাব’ সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল শোরগোল সৃষ্টি করেছে। সাবা আহমেদ ‘রিপাবলিকান মুসলিম কোয়ালিশন’ নামে এক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা। মেগান কেলির টেলিভিশন অনুষ্ঠানে তিনি আমেরিকান মুসলিমদের ধর্মপালনের অধিকার নিয়ে কথা বলেন।এক সাক্ষাৎকারে সাবা আহমেদ বলেছেন, মার্কিন পতাকায় মাথা আবৃত করার আইডিয়াটা আসে একেবারে শেষ মুহূর্তে।

তিনি একটি বেগুনি বর্ণের হিজাব পরার পরিকল্পনা করছিলেন। কিন্তু ফক্স টেলিভিশনের কর্মীদের সঙ্গে কথার ভিত্তিতে মার্কিন পতাকাকেই হিজাব হিসেবে ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেন। দেশপ্রেম এবং ইসলাম ধর্ম পালনের মধ্যে যে কোন বিরোধ নেই সেটা তুলে ধরতেই তিনি এই কাজ করেন।অনুষ্ঠানে সাবা আহমেদকে রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের এক মুখপাত্রের মুখোমুখি হতে হয় – যিনি যুক্তি দিচ্ছিলেন যে সন্ত্রাসবাদ ঠেকানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রে মসজিদগুলো বন্ধ করে দেয়া উচিত। সাবা আহমেদ বলেন, আমরা যে বার্তাটা দেয়ার চেষ্টা করছি তা হলো আমরা আমেরিকান, আমরা মুসলিম এবং আমরা রিপাবলিকান।

আমাদেরকে জায়গা করে দিতে হবে এবং আমাদের গ্রহণ করতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সাবা আহমেদের ‘পতাকা হিজাব’ বিরাট আলোড়ন তুলেছে। অনেকেই তার হিজাবের প্রশংসা করেছেন। একজন লিখেছেন, ‘আমেরিকান পতাকা হিজাব এ যাবত কালের আমার দেখা সবচেয়ে বেশি আমেরিকান জিনিস’। তবে অনেকে তার সমালোচনা করতেও ছাড়েননি। একজনের মন্তব্য, ‘এই পতাকার জন্য অনেক মার্কিন সেনা মারা গেছে। এটা তোমার হিজাব বানানোর জিনিস নয়।’

সূত্র : বিবিসি।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডট কম/রিপন/ডেরি

Related posts