November 16, 2018

মাদারীপুরে কিশোরীকে নির্যাতন, মুহূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে

অজয় কুন্ডু,
মাদারীপুরঃ
মাদারীপুরে কেন্দুয়া ইউনিয়নের দত্ত কেন্দুয়াতে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে পপি আক্তার (১৩) নামের এ স্কুল পড়–য়া শিক্ষার্থীকে মুহুর্ষু আবস্থায় জেলার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত পপি ওই গ্রামের মৃত শাজাহান শিকদারের মেয়ে। গত সোমবার রাতে বাবা হারা এতিম কিশোরীকে এ নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ওই এলাকার সোমবার সন্ধ্যার আগে হাতমুখ ধোয়ার উদ্দেশ্যে বের হলে শাজাহান মাতুব্বর নামে এক লোক তাকে ডাকে নিয়ে বেপরোয়া ভাবে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে পপি তার হাত থেকে ছুটে পালাতে গেলে পাশের ডোবায় পড়ে যায়।

এরপরেও থেমে যায়নি নির্যাতন। শাজাহান মাতুব্বর পপিকে ডোবার মাধ্যে নামিয়ে ময়লা পানিতে চুবাতে থাকে এবং আশেপাশে কেউ না থাকায় ওই ডোবা থেকে তুলে পুণরায় মারধর শুরু করে। পপির আত্ম চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এলে শাজাহান মাতুব্বর পালিয়ে যায়। এরপর মুহূর্ষু অবস্থায় পপিকে চিকিৎসার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহত পপি আক্তারের মা বিলকিস বেগম জানান, শাজাহান মাতুব্বরের পরিবারের সথে জমিজমা নিয়ে অনেক আগে থেকেই তাদের সাথে আমাদের ঝামেলা লেগেই থাকতো। তাই বলে ও আমার মেয়েকে নির্মম ভাবে হত্যা করার পরিকল্পনা করবে। পপির বাবা আজ জীবিত না থাকায় আমাদের অসহয়াত্ত্বের সুযোগ নিয়েছে ওই পরিবারের সকলে। তাই আমার মেয়েকে এমন নির্মম নির্যাতন করায় আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

Related posts