September 22, 2018

‘মনের মতো প্রেমিক পাচ্ছি না’

397

কাজী হায়াতের পরিচালনায় ‘ইতিহাস’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রাঙ্গনে বেশ জনপ্রিয়তা পান তিনি। ২০০৩ সালে এ ছবিতে অভিনয় করার সময় রত্না অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী ছিলেন। ছবিটি ব্যবসাসফল হবার পর বেশকিছু জনপ্রিয় ছবিতে টানা কাজ করেন তিনি। এ পর্যন্ত তার অভিনীত ৪৮টি ছবি মুক্তি পেয়েছে। তবে বর্তমানে চলচ্চিত্র পর্দায় কম দেখা যাচ্ছে তাকে। এক সময়ের ব্যস্ত এই অভিনেত্রী আজকের ‘আলাপন’-এ তার চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারসহ এই অঙ্গনের নানা বিষয়ে কথা বলেছেন।

কেমন আছেন? দেশের বাইরে গিয়েছিলেন কি ?

ভালো নেই। বাবা অনেক অসুস্থ। কিছুদিন আগেও হাসপাতালে ছিলেন তিনি। আর দেশের বাইরে বলতে পরিবারের সঙ্গে কয়েকদিনের জন্য দুবাই গিয়েছিলাম। দুই দিন হলো ঢাকা এসেছি।

আপনার অভিনীত কোনো ছবি কি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ?

হ্যাঁ। আমার অভিনীত ‘পরান পাখি’, ‘নষ্ট মুন্না’, ‘অরুণ বরুণ কিরণ মালা’ ছবিগুলোর কাজ শেষ। খুব শিগগিরই এগুলো মুক্তি পাবে।

নতুন কোনো ছবিতে আপনাকে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে না কেন?

সবশেষ ড্যানি সিডাকের পরিচালনায় অনুদানের ছবি ‘কাসার থালায় রূপালী চাঁদ’-এ অভিনয় করেছি। এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট থেকে মাস্টার্স সম্পন্ন করে বর্তমানে রাজধানীর ক্যাপিটেল ল কলেজে এলএলবি কোর্র্সে পড়াশুনা করছি। পড়াশুনারও চাপ বেশি। তাই কাজ কম করা হচ্ছে। অনুদানের ছবির কাজ একটু বাকি আছে। এ মাসের ২৫ তারিখ থেকে পুবাইলে আবারও শুটিং শুরু হবে ।

আপনি তো চলচ্চিত্র প্রযোজনাও করেছেন? সে ছবিতে কি লোকশান হয়েছে?

আমি ‘সেদিন বৃষ্টি ছিল’ নামে একটি ছবি প্রযোজনা করেছিলাম। বাংলাদেশে তো কোনো ছবিই চলছে না। বাণিজ্যিক ছবি আর চলছে না। ছবিটি প্রযোজনা করে আমার লোকশান হয়নি। তবে আসল পুজি ফেরত পেতে এক বছর পার হয়েছে। ব্যাংকে এই টাকা রাখলেও অনেক টাকা ঘরে আসত।

আপনার অভিনীত ব্যবসাসফল কয়েকটি ছবির নাম বলুন?

আমার অভিনীত ‘পড়ে না চোখের পলক’, ‘ইতিহাস’, ‘কেনো ভালোবাসলাম’, ‘প্রিয় সাথী’, ‘মন যেখানে হৃদয় সেখানে’ ছবিগুলো বেশ সুপারহিট।

চলচ্চিত্রের সুদিন ফিরে পাবার উপায় কি বলে মনে করেন?

আমার মনে হয় প্রযোজক ও হল মালিকদের সরাসরি যোগাযোগ থাকা দরকার। কারণ মাঝে কিছু মধ্যস্বত্ত্ব¡ভোগী টাকাগুলোতে ভাগ বসাতে থাকে। প্রযোজকের পকেটে টাকাটা ঠিকমত আসে না। ছবি দেখতে দর্শক এখনও হলে যায় কিন্তু হল মালিক, ম্যানেজার, রিপ্রেজেন্টেটিভ, এজেন্ট, হলের ডিজিটাল প্রসেসিংসহ বিভিন্ন জায়গায় টাকা ভাগ হয়ে যায়। খাজনার চেয়ে এখন বাজনা বেশি । যা আগের সময় ছিল না। তাই প্রযোজক ক্ষতিগ্রস্থ বেশি হচ্ছে।

অভিনয়ের বাইরে আবারও প্রযোজনা করার ইচ্ছে আছে কি ?

না আপাতত ইচ্ছে নেই। তবে বর্তমান পরিস্থিতি পরিবর্তন হলে ভেবে দেখতে পারি। আর আমি এখন আর বাণিজ্যিক ছবিতে অভিনয় করতেও চাই না। আর্ট ফিল্ম বা জীবননির্ভর ছবির প্রস্তাব পেলে কাজ করব।

বিয়ের খবর দিবেন বলেছিলেন-সেটা কবে জানাবেন?

আমার বিয়ে এবার খুব তাড়াতাড়িই হবে। আর প্রেম করেই বিয়ে করতে যাচ্ছি। তবে মনের মতো প্রেমিক পাচ্ছি না। সারাদেশে ভক্তদের এ বিষয়ে সহযোগিতা চাচ্ছি (হা হা হা ..)।

দি গ্লোবাল নিউজ ২৪ ডটকম/রিপন/ডেরি

Related posts