September 24, 2018

মনরে, তোর মন পাইলাম না!


রাজু আহমেদ
শিরোনামটি আমার একজন প্রিয় স্যারের উক্তি থেকে ধার করা । শুরুতেই অস্বীকার করলাম মনের অস্তিত্ব, কেননা আমি প্রমাণ করতে পারিনি মনের উপস্থিতি । আদৌ কি মন নামক কোন স্বতন্ত্র বস্তুর অস্তিত্ব রয়েছে ? গিলবার্ড রাইল নামক একজন বিখ্যাত দার্শনিক তার ‘ফিলোসফি অফ মাইন্ড’ নামক গ্রন্থে মনের অস্তিত্ব অস্বীকার করেছেন । তার মতে, মনের কোন অসিস্ত্ব নাই । মন বলতে যা বুঝি তা এক ধরণের ভূতের ধারণা, যা কাল্পনিক । এ প্রসঙ্গে দার্শনিক মতবাদ বাদ দিয় আসুন, সাধারণ যৌক্তিকতায় আপনার/আমার মধ্যে খুঁজে দেখি মন আছে কিনা । আচ্ছা, আপনাকে(২০বছর) যদি বলা হয় ৬০ বছরের একজন বৃদ্ধ/বৃদ্ধাকে বিবাহ করতে, আপনি কি রাজি হবেন ? কোনভাবেই রাজি হবে না । এক বাক্যে বলে দিবেন, না । তাকে না বলছেন কেন ? তারও তো মন আছে । তবে আপনি তাকে বিবাহ করতে রাজি হচ্ছেন না শুধু তার দেহ বিবেচনায়, তাইতো ? ভাটির টানে ক্ষয়ে যাওয়া দেহ পছন্দ হলো না ?
…….
ধরলাম, মন নামক কিছু একটা আছে । আচ্ছা বলুন তো, আমরা যাকে মন বলি তার কোন ক্রিয়াকলাপ আজ অবধি সে মনের দ্বারা প্রকাশ করতে পেরেছি ? কথিত মন খারাপ থাকুক কিংবা ভালো থাকুক তার প্রকাশ তো আমাদের দেহের মাধ্যমেই হয় । কখনো ক্রন্দন, কখনো চিৎকার, কখনো অভিমান, কখনো হাসি, কখনো কিল, কখনো ঘুষি-এর সব কিছুই তো দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ দ্বারা হয় । তবে প্রশ্ন, মন কোথায় এবং সেটা কেমন ?
…….
অনেকে জিজ্ঞাসা করে বসবেন, যদি মন নাই থাকে তবে প্রেম-ভালোবাসার অস্তিত্ব আছে কি করে ? খুব ভালো কথা ।  আচ্ছা ভালোবাসা কাকে বলে ? মিঠা মিঠা কয়েকটা কথা বলে দু’জন দু’জন সম্পর্কের ঘটনা যখন চেরাগ নিভানোর দিকে গড়ায় সেটা কি ভালোবাসা ? প্রেমের ক্ষেত্রে এটাই এখন শতভাগ পরিণতি । বিশ্বাস না হলে নিজের জীবন থেকে দৃষ্টান্ত নিন । মনের সাথে মনের যদি ভালোবাসা ঘটে তবে একজন আরেকজনকে ত্যাগ করে কিভাবে ? কিভাবে একজন অন্যজনকে ভুলে যেতে পারে ? কিভাবে এটা সম্ভব হয় ?
……
আসুন বিবাহিতদের ক্ষেত্রে মনের বন্ধন শক্তি বিবেচনা করি । আমি ত্রিশ বছর আগের কিংবা পঞ্চাশ বছর পরের কোন সম্পর্ক দিয়ে আজকের মনের বিচার করছি না । বর্তমান প্রেক্ষাপটের আলোকেই আজকের কথা হবে । ধরুন, স্বামী-স্ত্রীর মাঝে মধুর বন্ধন । তাদের রোমান্টিকতা দেখে আশপাশের সবাই হিংসা জ্বলে পুড়ে মরে । আচ্ছা, এমন স্বামী-স্ত্রী যদি একজন আরেকজনের জৈবিক চাহিদা পূরণ করতে কোনভাবে ব্যর্থ হয় তখন হয় স্ত্রী অন্য কোন পুরুষের দিকে যাবে নয়ত স্বামী অন্য কোন নারী খুঁজবে, অবশ্যই খুঁজবে । এগুলো অস্বীকার করতে পারেন কেননা জগতে অস্বীকার করাটা খুব সহজ কাজ বটে কিন্তু এটাই বাস্তবতা এবং বর্তমান সময়ের চিত্র ।
………
পেলেন খুঁজে মনের অস্তিত্ব ? আপনি কথায় কথায় বলতে পারেন, আমি যাকে চাই তার মন সুন্দর হতে হবে । মানলাম, তাকে সুন্দর মনের অধিকারী হতে হবে কিন্তু আপনি বুঝবেন কি করে কার মন সুন্দর আর কার মন সুন্দর নয় ? প্রথম সাক্ষাতে আপনি তাকে জিজ্ঞাসা করলেন, সে আপনাকে বুঝবে কিনা । সে একবাক্যে উত্তর দিলো আপনাকে পেলে জগতে তার আর কোন চাহিদাই থাকবে না, আপনি যেমন চাইবেন তেমন করেই সে চলবে । আপনিও হয়ত অনুরূপ কিছু বললেন । এমন শক্ত কথা বলার পরেও আমরা কি অহরহ এসবের উল্টোচিত্র সমাজে দেখি না ? বিচ্ছেদের মিছিল কি আমাদের চারপাশে অনবরত চলছে না ? মনের সাথেই যদি মনের মিলন হয়, তবে সেখানে বিচ্ছেদের শঙ্কা উঁকি দেয় কি করে ?
……
দেহের সাথে মনের সম্পর্ক কিভাবে হয় এ নিয়ে বহুরকমের দার্শনিক আলোচনা হয়েছে । কেউ ভাববাদ, কেউ বাস্তবাদ গ্রহন করে যে যার মত ব্যাখ্যা দিয়েছেন ? সবকিছুর পরেও প্রশ্ন জাগে, আসলে মন কি, সে কোথায় বাস করে । আমাদের পারস্পরিক আলাপের ক্ষেত্রে একই ধরণের কথায় আমরা এক সময় প্রতিবাদ করি না আবার এক সময় খুব রেগে যাই । এসব কি মনের বিক্ষিপ্ততার কারণে হয় নাকি দেহের সুস্থতার ওপর ভিত্তি করে । সমাধান খুঁজে পাচ্ছি না, তাই হন্যে হয়ে সমাধান খুঁজছি । প্রশ্নগুলোর উত্তর জানা থাকলে জানাবেন । কৃতজ্ঞতার সাথে কৃতার্থও হবো ।
……
রাজু আহমেদ । কলামিষ্ট ।

Related posts