September 22, 2018

মধ্যরাত থেকে পেট্রোল পাম্পে ‘বাতিল’ ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড, সিদ্ধান্ত ডিলার্স সংগঠনের

এম বি ফয়েজঃ নয়াদিল্লি: রবিবার মধ্যরাত থেকে দেশের কোনও পেট্রল পাম্পে গৃহীক হবে না ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড। এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সর্বভারতীয় পেট্রোলিয়াম ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন।

কিন্ত, কেন এমন সিদ্ধান্ত? ডিলারদের ওপর ১ শতাংশ মার্চেন্ট ডিসকাউন্ট রেট বা এমডিআর ধার্য করার প্রতিবাদেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, গত শনিবার, গত ১৬ তারিখে জারি হওয়া রিজার্ভ ব্যাঙ্কের একটি নির্দেশিকাকে হাতিয়ার করে অন্যান্য ব্যাঙ্কগুলি জানিয়ে দেয় যে এবার থেকে ডেবিটা বা ক্রেডিট কার্ডে জ্বালানি কিনলে ডিলারদের থেকে এমডিআর ধার্য করা হবে।

ব্যাঙ্কগুলির নির্দেশিকা অনুযায়ী, ডেবিট কার্ডের ক্ষেত্রে এই এমডিআর হবে ০.২৫ থেকে ১ শতাংশ এবং ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে এই চার্জ হবে ১ শতাংশ।

দুদিনের রাজ্যস্তরে বৈঠকের পর এদিন সংগঠনের সভাপতি অজয় বনসল জানান, প্রত্যেক পেট্রোলিয়াম ডিলার ২ শতাংশ এমডিআই লাভ্যাংশে কাজ করে থাকে। এবার ১ শতাংশ ব্যাঙ্ক নিয়ে নিলে, লাভ্যাংশ কমে যাবে।

তিনি বলেন, আমরা অনেক কম লাভে কাজ করি। এবার এই চার্জ ধার্য করা হলে, ব্যবসাই করা যাবে না। তাই এমতাবস্থায় ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড নেওয়া বন্ধ করা ছাড়া কোনও উপায় ছিল না।

তিনি যোগ করেন, ডেবিট-ক্রেডিট কার্ডে পেট্রোল-ডিজেল কিনলে ০.৭৫ শতাংশ হারে মিলবে ছাড় বলে ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র। অ্যাসোসিয়েশনের অভিযোগ, ঘোষণার পর ছাড়ের টাকা দেয়নি তেল সংস্থাগুলি।

বনশল জানান, সংগঠনের এই সিদ্ধান্ত পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক ও কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে, পেটিএম, ভিম অ্যাপ সহ ডিজিটাল ওয়ালেটের মাধ্যমে লেনদেন আগের মতই গৃহীত হবে। যদিও, সেখানেও যদি চার্জ বা লেভি ধার্য করা হয়, তাহলে সেটাও বন্ধ করা হবে।

এমনিতেই, কেন্দ্রের নোট বাতিলের ফলে, সাধারণ মানুষ নগদ সমস্যায় জর্জরিত। তার ওপর এখন পেট্রল পাম্পে কার্ড বাতিল হলে, সেই দুর্ভোগ আরও কয়েকগুণ বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা।

21card1-580x368 21card1-580x368

Related posts