September 22, 2018

ভোলায় ১৪টি গ্রামে ঈদুল ফিতর উদযাপিত

aঢাকা::সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ভোলা জেলার ৫ উপজেলায় ১৪টি গ্রামের প্রায় ১০ হাজার পরিবার আজ রোববার ঈদুল ফিতর উদযাপন করছেন।

শরিয়তপুর জেলার নরিয়া উপজেলার দরবারে আউলিয়ার শুরেশ্বর দরবার পীরের অনুশারীরা ও চট্রগামের সাতকানিয়া এবং ভান্ডারি শরিফ পীরের মুরিদ এসব পরিবারের সদস্যরা সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল ফিতর পালন করে আসছে র্দীঘ কয়েক বছর ধরে।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার ছেলামত মেম্বার বাড়ি, আব্দুল্লাহ মাঝি বাড়ি, টবগী মজনু মিয়ার বাড়ীর দরজা, পানচায়েত বাড়ী ও চকিদার বাড়ি জামে মসজিদে, লালমোহন উপজেলার লাঙ্গলখালীর পশ্চিম পাশে পাটওয়ারী বাড়ির জামে মসজিদ সংলগ্ন এলাকা, ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা ও রতনপুর গ্রাম, বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ও মুলাইপত্তন গ্রাম, তজুমদ্দিন উপজেলার শিবপুর, খাসেরহাট, চাঁদপুর ও চাঁচড়া গ্রাম, লালমোহন উপজেলার পৌর শহর, ফরাজগঞ্জ গ্রাম এবং চরফ্যাশন উপজেলার দুলারহাট, ঢালচর গ্রামের শুরেশ্বর দরবার পীরের অনুশারীরা ও চট্রগ্রামের সাতকানিয়া এবং ভান্ডারি শরিফ পীরের মুরিদ অনুষারিরা প্রতিবছর সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে ঈদুল ফিতর পালন করে থাকেন।

শুরেশ্বর দরবার শরীফের অনুসারী ভোলার খলিফা বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ইউনিয়নের বাসিন্দা মোঃ মজনু ফকির জানান, তাদের অনুসারীর সংখ্যা ১০ হাজারের কম নয়। জেলার বিভিন্ন স্থানে অবস্থানকারী অনুসারীরা ওই মসজিদে এসে ঈদের নামাজ আদায় করেন।

বোরবার সকালে ঈদের প্রথম জামায়াত তজুমদ্দিন উপজেলার শম্ভুপুর গ্রামের আবদুল্লাহ মুন্সি বাড়ি মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়।

Related posts