September 19, 2018

‘ভোট না দিলে বেতন বন্ধ’


ঢাকাঃ  কোনোভাবেই যেন থামানো যাচ্ছে না রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন বেপরোয়া আচরণ। নিষেধাজ্ঞা ভেঙে প্রায় প্রতিদিন নিজেই মাঠে নেমে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

নৌকার বাইরে ভোট দিলে হাত পা ভেঙে এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিয়ে বেড়াচ্ছেন। এমনকি নৌকায় ভোট না দিলে শিক্ষকদের বেতন বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাকে লিখিত অভিযোগ দেয়া হলেও কোনো ব্যবস্থাই নিচ্ছেন না নির্বাচন কমিশন।

এমপি আয়েনের নির্বাচনী এলাকায় মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা ও মৌগাছী ইউনিয়নে স্বতন্ত্রপ্রার্থী আবুল হোসেন সরদার বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধির কোনো তোয়াক্কাই করেন না এমপি আয়েন উদ্দিন।

তিনি বলেন, দলীয় নেতাকর্মীদের বহর নিয়ে এমপি গ্রামে গ্রামে গিয়ে নৌকার ভোট চাইছেন। হুমকি দিচ্ছেন। বলছেন-‘নৌকার বাইরে ভোট দিলে এলাকা ছাড়া করা হবে।’

আবুল হোসেন সরদার বলেন, নৌকা ছাড়া সব প্রার্থীরই পোস্টার পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে। কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছে না।

এমপি আয়েন ও তার দুলাভাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সালামের হুমকিতে আতঙ্কিত এখানকার ভোটাররা।

এদিকে, এমপি আয়েন উদ্দিনের বেপরোয়া আচরণ ও হুমকি-ধামকিতে সাধারণ ভোটাররা আতঙ্কিত বলে জানিয়েছেন মৌগাছী ইউনিয়নের আরেক চেয়ারম্যানপ্রার্থী বিএনপি নেতা আবুল হোসেন খান।

এ বিষয়ে গত বুধবার রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগও করেন তিনি।

অভিযোগ উল্লেখ করা হয়েছে, এমপি আয়েন উদ্দিন বেশ কয়েকদিন ধরেই প্রতিটি গ্রামে গ্রামে ভোটারদের কাছে গিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট চাচ্ছেন। ভোটারদের মধ্যে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছেন।

গত ৩০ মে এমপি আয়েন বাটুপাড়া, হরিফলা, চাঁদপুরসহ বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে ভোটারদের শাসিয়ে আসেন। ফলে তিনি ও তার ভোটাররা নিরাপত্তাহীনতা ভুগছেন বলেও অভিযোগে উল্লেখ করেছেন তিনি।

এ বিষয়ে মৌগাছী ইউনিয়নের রির্টানিং কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোখলেসুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, আবুল হোসেন খানের লিখিত অভিযোগ পাওয়া পর এমপি সাহেবকে মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে।

জানা গেছে, নৌকার পক্ষে ভোট না করলে স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের বেতন-ভাতা বন্ধ করে দেয়ারও হুমকি দিয়েছেন আয়েন এমপি।

সম্প্রতি দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে তিনি জুটমিলে অবৈধভাবে নির্বাচনী সভা করেন। ওই সভায় তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, ‘নৌকায় ভোট না দিলে শিক্ষকদের বেতন-ভাতা বন্ধ করে দেয়া হবে। যে কোনো মূল্যে শেখ হাসিনার প্রতীককে বিজয়ী করতে হবে। প্রশাসন সামাল দেয়ার দায়িত্ব আমার।’

তবে সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন আয়েন উদ্দিন এমপি। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের আমি ভোট দেয়ার কথা তো বলতেই পারি। তবে কাউকে কোনো হুমকি দেয়া হয়নি।

অপরদিকে সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পোস্টার পুড়িয়ে দেয়া ও হুমকি-ধামকি দেয়া অভিযোগ করেছেন বাঘা উপজেলার আড়ানী ইউনিয়নের বিএনপি দলীয় প্রার্থী নাসির উদ্দিন।

তিনি যুগান্তরকে বলেন, নৌকার পোস্টার নিজেরা পুড়িয়ে দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। কিন্তু রিটানিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করে ফল হচ্ছে না।
ইত্তেফাক

Related posts